চিলড্রেন স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিং দিবস উদযাপিত

scratch-programming

প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ে অনুপ্রাণিত ও উৎসাহিত করার আহ্বান জানিয়ে দেশে প্রথমবারের মতো উদযাপিত হয়েছে চিলড্রেন স্ক্রাচ প্রোগ্রামিং দিবস। বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) তাদের দুই মাসব্যাপী কম্পিউটার শিক্ষা বিষয়ক আয়োজনের অংশ হিসাবে এই দিবস উদযাপন করে।

দিবসের মূল অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় ঢাকায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার ল্যাবে। সেখানে তিন পর্বে প্রায় ৭৫ জন খুদে শিক্ষার্থী প্রোগ্রামিংয়ে হাতে খড়ি নেয়।

Safe Internet

উদয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থী মুজদালিফা খন্দকার  রিদিকা প্রোগ্রামিং ক্লাসটা খুবই উপভোগ করেছে বলে জানায়। সে বলছে, “আমি অ্যাংরি বার্ডের গেইমটা খেলেছি, বড় হয়ে আমিও এমন গেইম বানাতে চাই।”

শাহিন ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের ৪র্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী আনুশা আরও বেশি বেশি এমন আয়োজনের দাবি জানিয়ে গেছে আয়োজকদের কাছে। তবে, দিবসের সবচেয়ে আকর্ষণ ছিল আনন্দ মাল্টিমিডিয়া
স্কুলে ১ম শ্রেণির পড়ুয়া তাশফিয়া সারা। সারা জানিয়েছে, গেইম খেলতে তার খুবই ভালো লাগে। এই প্রোগ্রামে এসে সে জেনেছে তার পক্ষেও এমন গেইম বানানো সম্ভব। এখন থেকে তাই প্রোগ্রামিং শেখার শপথ নিয়েছে সে।

দুই সন্তানকে নিয়ে এসেছিলেন ইন্টারনেট সোসাইটি বাংলাদেশ চ্যাপ্টারের সাধারণ সম্পাদক কাওছার উদ্দিন। তিনি বললেন, শিশুদের জন্য স্ক্র্যাচ প্রোগ্রামিংটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ আয়োজন আরও ছড়িয়ে পড়া প্রয়োজন।

দিনভর খুদে শিক্ষার্থীদের প্রোগ্রামিং শেখায় হাতে খড়ি দিয়েছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ফারহানা শারমীন, ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শাকিলা মাহজাবীন তন্বী এবং বিডিওএসএনের মেন্টর সাদিয়া রহমান, তানজিলা তামান্না, টুটুল সূত্রধর ও হুমায়ুন কবীর সেশনগুলো পরিচালনা করেন।

বিডিওএসএনের প্রোগ্রাম অফিসার শারমিন কবীর জানান, আগামীতে খুদে শিক্ষার্থীদের নিয়ে নিয়মিত প্রশিক্ষণ ও মজার আয়োজনের পরিকল্পনা করছেন তারা। ৯ ফেব্রুয়ারি জাতীয় গণিত উৎসব প্রাঙ্গণেও তাদের বুথ থাকবে বলে তিনি জানান।

বিশ্ব কম্পিউটার শিক্ষা সপ্তাহকে কেন্দ্র করে বিডিওএসএনের এ আয়োজনে গোল্ড স্পন্সর এডিএন গ্রুপ, ব্রোঞ্চ স্পন্সর শিওরক্যাশ ও দোহাটেক নিউ মিডিয়া, ল্যাপটপ পার্টনার ডেল এবং পার্টনার ইন্টারনেট সোসাইটি ঢাকা চ্যাপ্টার।

আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের মিলনায়তনে অংশগ্রহণকারীদের সদনপত্র দেবেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। এর মাধ্যমে দুই মাসব্যাপী আয়োজনের সমাপ্তি হবে।