নো বল নির্ণয়ে নতুন প্রযুক্তি

umpire No Ball

ক্রিকেটে প্রযুক্তির ব্যাবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। তেমনি বেড়ে চলেছে অত্যাধুনিক যন্ত্রের ব্যবহারও। তেমনি চলমান ইংল্যান্ড-পাকিস্তানের একদিনের সিরিজে পরীক্ষামূলকভাবে দেখা মিলেছে নতুন এক পদ্ধতির। ক্রিকেটে সিদ্ধান্ত আরো নিঁখুত করার জন্য এই প্রযুক্তির আবির্ভাব। মাঠে থাকা আম্পায়ারের কাছে থাকবে একটি ‘পেজার ওয়াচ’। কোনো বোলার যদি বোলিং এর দাগ অতিক্রম করে যায়, তাহলে সেই ‘পেজার ওয়াচ’ এ কম্পন হবে। আর সাথে সাথেই আম্পায়ার ডাকবেন ‘নো বল’।

pager watch

Safe Internet

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) জানিয়েছে, নো বলের সিদ্ধান্ত নিখুঁত করার জন্য চারটি ক্যামেরার ছবি একটি বিভক্ত-পর্দায় থাকবে। যার মাধ্যমে ধীর গতির রিপ্লে এবং সামনে-পিছনে দেখা যাবে। টেলিভিশন আম্পায়ারের সাথে যোগাযোগের জন্য মাঠে থাকা আম্পায়ারের কাছে থাকবে একটি ‘পেজার ওয়াচ’। যখন একটি ‘নো’ বল হবে,  তখন সেই ‘পেজার ওয়াচ’ এ কম্পন হবে। যদি কখনো ঘড়িটি তথ্য পাঠাতে ব্যর্থ হয়, তাহলে আম্পায়াররা নিয়মিত মৌখিক যোগাযোগের মাধ্যম ব্যবহার করবে। তবে এই সিরিজের কোনো ভেন্যুতে যদি পার্শ্ব ক্যামেরা না থাকে, তখন মাঠের আম্পায়ারই পায়ের ‘নো’ বল ডাকবেন। তাছাড়া টিভি আম্পায়ারের হাতেই থাকছে পায়ের ‘নো’ বল ডাকার সিদ্ধান্ত।

আইসিসির সিনিয়র ম্যানেজার অ্যাডাম গ্রিফিথ আরও জানান, `পায়ের নো বল নির্ধারণ আরো নিঁখুতভাবে এবং ধারাবাহিকভাবে করতেই এই পদ্ধতির নির্ণয় করা হয়েছে। আর সিরিজ শুরুর আগে আম্পায়ারদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে।`

third umpire screems

সূত্রঃ ESPN Cricinfo