বড়দিনের উপহার

আসছে বড়দিন।খ্রিস্ট-ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব। আর উৎসব মানেই একগাদা উপহার! উপহার ছাড়া আসলে পূর্ণতা পায়না কোন উৎসবই। আর যুগে যুগে উৎসবের রঙ আর আনন্দমাত্রায় যত পরিবর্তনই আসুক না কেন শিশুদের কাছে আজও উৎসবের মূল আকর্ষণই উপহার। তবে হ্যাঁ!তাদের জন্য উপহার খুঁজতে গেলে এখন রীতিমত কাগজ-কলম নিয়ে ছক কাটতে বসতে হয়। তাই আকর্ষণীয় কিছু উপহারের তালিকা তুলে ধরা হল-

খেলনাসামগ্রী
শিশুদের দেবার জন্য যখন কোন উপহারের কথা ভাবা হচ্ছে তখন তালিকায় সবার আগে স্থান পায় খেলাধুলার সামগ্রি।তবে যেকোনো শিশুকে উপহার দেয়ার আগেই মাথায় রাখতে হবে তার বয়সের বিষয়টি। একদম শিশুদের জন্য বারবি সেট, ডলহাউস, টেডিবিয়ার, খেলনাগাড়ি, ট্রেন বা প্লেন সেট, লেগো-সেট, ওয়াটার-গান হতে পারে খুবই আকর্ষণীয় উপহার।

ClassTune

আর স্কুল-পড়ুয়া একটু বড় শিশুদের জন্য পাযল সেট বা রুবিক্স-কিউবের মত খেলনাগুলোও উপহার হিসেবে খুব ভালো। তবে এখন যেহেতু শীতকাল ব্যাডমিন্টন খেলার সরঞ্জাম হতে পারে খুবই চমৎকার একটি উপহার।

এছাড়া যদি তাদের পছন্দের সুপারহিরো সম্পর্কে আপনার কোন ধারণা থেকে থাকে তবে সেই সুপারহিরোদের কস্টিউম উপহার দিয়েও চমকে দিতে পারেন তাদের।

ছবি আঁকার/সংগীতচর্চার কোন সামগ্রী
কোন শিশুর যদি ছবি আঁকার দিকে ঝোঁক থেকে থাকে তবে তাদের জন্য রংপেন্সিল, তুলি, স্কেচবুক, কালারবুকই হবে অত্যন্ত পছন্দের উপহার। বাড়ির পাশের যেকোনো লাইব্রেরিতেই পেয়ে যাবেন এসব জিনিস।

আর সংগীতচর্চায় আগ্রহী শিশুদের জন্য সবচেয়ে কাজের আর মজার উপহার হতে পারে তার আকর্ষণ আছে এমন কোন মিউজিকাল ইন্সট্রুমেন্ট তার হাতে তুলে দেয়া। শিশুর পছন্দ আর রুচি অনুযায়ী এসব ইন্সট্রুমেন্ট কিনতে চলে যান সায়েন্স ল্যাব্রটারি এলাকায় পেয়ে যাবেন সারিবেঁধে সংগীতের যাবতীয় সব যন্ত্রপাতি।

জামা-জুতা
যদি চান উপহারটি শিশুটির কাজে লাগুক তবে পরিধেয় কাপড় বা জুতো হতে পারে একটি চমৎকার উপহার। তবে খেয়াল রাখতে হবে জামা বা জুতাগুলো যাতে হয় একটু হালফ্যাশনের। আর বড়দিন যেহেতু শীতেই, তাই নানারকম কালারফুল জ্যাকেট, সোয়েটার, বুট, শু, টুপি/কাউবয় হ্যাট হতে পারে কিছুটা ভিন্নধর্মী উপহার।
তাছাড়া ঘড়ি এবং ব্রেসলেটও চাইলে রাখতে পারেন আপনার উপহারের তালিকায়।

গল্পের বই
উপহার হিসেবে গল্পের বইয়ের আকর্ষণ কমবেনা কখনই। শুধু কোন উপন্যাস বা শিক্ষামুলক বই নয়, চাইলে তাদের দিতে পারেন কিশোর-ক্লাসিক সিরিজের বই এবং কমিক বইগুলোও। কেননা আজকের যুগের বেশিরভাগ শিশুই বিনোদনের এই সোনালি শাখার আনন্দ সর্ম্পকে অজ্ঞাত।

ভিডিও গেম ও সিনেমা-কার্টুনের সিডি
ভিডিও-গেম খেলতে পছন্দ করে বা মুভি দেখতে পছন্দ করে এমন শিশুদের জন্য কিনতে পারেন বিভিন্ন গেম ও মুভির সিডি। তবে কেনার আগে অবশ্যই সেই গেম বা মুভিটি শিশুর উপযোগী কিনা টা নিশ্চিত হয়েই কিনা উচিত। আর এসব সিডি পাওয়া যাবে আপনার হাতের কাছের যেকোন শপিং-মলেই।

স্টেশনারিজ
পেন্সিল বক্স/ব্যাগ,ওয়াটার বোটল,স্কুল ব্যাগ-এসব নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলোও হতে পারে খুবই কাজের উপহার। কেননা বড়দিন শেষেই শুরু হতে যাচ্ছে স্কুল-পড়ুয়া শিশুদের শিক্ষাজীবনের নতুন বছর। আর এই এই নতুন উপহারগুলোর মাধ্যমেই হতে পারে তাদের নতুন বছরের শুভ সুচনা।

চকলেট ও কার্ড
চকলেট এমন একটা জিনিস যার আকর্ষণ শিশুদের কাছে হারাবেনা কখনই। তবে উপলক্ষ যাই হোক না কেন যে কোনো বয়সী শিশুর জন্য এর থেকে ভালো উপহার আর হয়না। আর মজাদার সব চকলেট পেয়ে যাবেন একদম হাতের নাগালেই।

আশেপাশের যেকোনো সুপার-শপ,শপিং-কমপ্লেক্সেই পাবেন নানারকম চকলেট। তাছাড়া আরচিস,হলমার্কপ,আগোরা,স্বপ্ন,মিনা-বাজারে পেতে পারেন সুন্দর সব মোড়কে সাজানো বিভিন্ন ফ্লেভারের চকলেট বার, ক্যান্ডি ও টফি। আর বিভিন্ন শুভেচ্ছা-বার্তাসহ নানা ডিজাইনের কার্ডও আপনি পেয়ে যাবেন এসব জায়গায় একই সাথে।

ব্যাস!উপরের তালিকা থেকে বেছে নিন আপনার শিশুর জন্য পছন্দের কোন উপহার আর সুন্দর রঙ্গিন কাগজ দিয়ে পেঁচিয়ে রেখে দিন আপনার ক্রিসমাস-ট্রির পাশে!অথবা নিজেই সান্তা সেজে হাজির হয়ে চমকে দিন আপনার শিশুকে আর রাঙ্গিয়ে দিন আপনার শিশুর জীবনের আরও একটি বড়দিন!শুভ বড়দিন সবাইকে!