মুক্তি পাচ্ছে টুমোরোল্যান্ড

চলতি সপ্তাহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে এমন ছবির মিছিলে রয়েছে ব্র্যাড বার্ড ও ডেমন লিন্ডেলফ প্রযোজিত 'টুমোরোল্যান্ড'। বিজ্ঞান বিষয়ক এ চলচ্চিত্রের জন্য মুক্তির তারিখ হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে আগামী ২২ মে।

প্রথমে "নাইন্টিন ফিফটি টু" শিরোনাম থাকলেও পরবর্তীতে এই চলচ্চিত্রের টাইটেল বদলে রাখা হয় "টুমোরোল্যান্ড" যা কিনা যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পেতে যাচ্ছে "ডিজনি টুমোরোল্যান্ড : এ ওয়ার্ল্ড বিয়োন্ড" নামে।

দু'বার অস্কারজয়ী ব্র্যাড বার্ড রহস্যেঘেরা ও অ্যাডভেঞ্চারে ভরপুর এই চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা ও পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন।
এই সিনেমাটির গল্প শুরু ক্যাসি নিউটন নামের এক কৌতূহলী কিশোরী,ফ্র্যাঙ্ক ওয়াকার নামের এক প্রতিভাবান মধ্যবয়স্ক আবিষ্কারক ও অ্যাথেনা নামের এক মেয়েশিশু রোবটকে নিয়ে।

ফ্র্যাঙ্ক একটি নির্দিষ্ট লক্ষের পিছনে ছুটতে থাকে। আর ক্যাসি একটি বিপদজনক মিশনে বের হয় যার উদ্দেশ্য হল সময় ও অক্ষের মাঝে এমন একটি জায়গা রয়েছে যার নাম টুমোরোল্যান্ড, তার রহস্য উন্মোচন করা। এই কাজের জন্য তাদের পৃথিবীতে আনতে হয় তিনটি পরিবর্তন যা চিরস্থায়ী হয়ে যায়।

চলচ্চিত্রের মূল চরিত্র অর্থাৎ ক্যাসি হিসেবে অভিনয় করেছেন ব্রিট রবার্টসন। এই চলচ্চিত্রে অভিনয় প্রসঙ্গে ব্রিট বলেন,'যখন আমি এই চরিত্রটি পাই, সেটি ছিল আমার জীবনের সবচেয়ে সেরা অনুভূতি।'

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র ফ্র্যাঙ্ক ওয়াকারকে রুপালি পর্দায় বাস্তব রূপ দান করেছেন একাডেমী অ্যাওয়ার্ড জয়ী জর্জ ক্লুনি। এছাড়া অন্যান্য বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র ডেভিড নিক্স, অ্যাথেনা ও উর্সুলা হিসেবে অভিনয় করেছেন যথাক্রমে হাঘ লরি, র্্যাফে ক্যাসিডি, ক্যাথরিন হ্যান।

টুমোরোল্যান্ডে সার্বিক সংগীত রচনার দায়িত্বে ছিলেন মিশন ইম্পসিবল থ্রি ও দ্যা ইনক্রেডিবেল্স-এর সংগীত পরিচালক মাইকেল গিয়াচ্চিনো।   
ছবিটির বিভিন্ন অংশের দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে আমেরিকার ডিজনিল্যান্ড-পার্কসহ আমেরিকা, কানাডা, স্পেনের বিভিন্ন মনোরম স্থানে।

চলচ্চিত্র বিশেষজ্ঞদের ধারণা, আকর্ষণীয় কাহিনী ও জর্জ ক্লুনির মত নামি তারকার উপস্থিতিতে টুমোরোল্যান্ড মুক্তির প্রথম সপ্তাহেই দেখাবে চমক। এখন শুধু অপেক্ষার পালা ১৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যায়ে নির্মিত এই চলচ্চিত্র সত্যিই প্রযোজক-পরিচালককে আশানুরূপ ফল দেখাতে পারে কিনা।