সিভি পাঠানোর আগে অবশ্যই করণীয়

943
Sending-email

হয়তোবা আপনি পদটির জন্য উপযুক্ত। তবে এমনও হতে পারে যে নিয়োগদানকারী ব্যবস্থাপক আপনার সিভি নাও খুলে দেখতে পারে। কারণ তার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে না পারা।

আমরা এখানে কিছু সাধারণ ভুল যা অনেকেই করে থাকে সেগুলো তুলে ধরেছি। বিষয়গুলো মেনে চললে প্রথম দেখাতেই আপনার সিভিটি ফেলে দেওয়ার সম্ভাবনা কমে যাবে। তাই ‘সেন্ড’ বাটনকি চাপার আগে নিচের চেকলিস্টগুলো ভালোভাবে দেখে নিন।

ClassTune

সাধারণ ফন্ট ব্যবহার করুন
সিভিতে একাধিক ফন্ট, কালার ও ফরম্যাট ব্যবহার করে সিভির পাঠককে বিরক্ত করবেন না। মনে রাখবেন, যখন কেউ সিভি দেখবে তখন আপনার জন্য খুব কম সময়ই বরাদ্দ থাকে। ফলে আপনি কি জানাতে চাচ্ছেন তা বোঝার জন্য সময় নষ্ট করাবেন না। সচরাচর ব্যবহৃত ফন্ট ও ১১ অথবা ১২ ফন্টসাইজ ব্যবহার করবেন। কালো কালার বেশি উপযোগি।

নিজের মতো সাজিয়ে তুলুন
আমরা সচরাচরই অন্যের সিভি অনুকরণ করি কিংবা অনলাইন জব সাইটের মাধ্যমে তৈরি করা সিভি ব্যবহার করে থাকি। অন্যের সিভির সাথে আপনার সিভি নাও মিলতে পারে। কারণ তার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা এক নয়। আবার কোম্পানির ধরণ ও চাকরিভেদে সিভি তৈরির প্রয়োজন হতে পারে। তাই সিভি থেকে অপ্রয়োজনীয় অংশ বাদ দিন। আপনার যেসব দক্ষতা বা অভিজ্ঞতা নেই সেগুলো যুক্ত করতে যাবেন না। এতে আপনি ব্লাকলিস্টেডও হয়ে যেতে পারেন।

বানান ভুল নয়
যখন কেউ তার সিভিতে বানান ভুল আছে কিনা সেটি দেখে না, তখন বিষয়টি খুবই বাজে দেখায়। এর মাধ্যমে আবেদনকারীকে অলস, অমনোযোগী মনে করা হয়। ব্যাকরণগত ভুল করেও আপনি চাকরির প্রতিযোগিতার টিকতে পারবেন না। তাই সিভি পাঠানোর আগে কয়েকবার বানান ভুল ও টাইপো আছে কিনা সেটি দেখে নিন।

সবসময় একটি কাভার লেটার পাঠান
আপনি কতোবার সিভি পাঠিয়েছেন কিংবা যতোই ক্লান্ত হয়ে পড়েন না কেনো এই বিষয়টি ভুললে চলবে না। সিভির সাথে অবশ্যই কাভার লেটার পাঠাবেন। এটি খুবই ছোট, সাধারণ, উদ্দেশ্যপূর্ণ হতে হবে। অধিকাংশ নিয়োগদাতা প্রতিদিন অসংখ্য মেইল বা হার্ডকপি সিভি পান। তাই আপনি যদি একটি ভালো কাভার লেটার না যুক্ত করেন তাহলে এটি নিশ্চিত নয় যে তারা সিভিটি খুলে দেখবেন কিনা।

অর্থহীন ইমেইল ঠিকানা ব্যবহার করবেন না
অনেকেই দেখা যায় ফেইসবুক, টুইটার কিংবা ইনস্টাগ্রামের মতো ইমেইল ঠিকানাও বিভিন্ন ‘সিলি’ বা অর্থহীন ইউজার নেইম যেমন PrincessXYZ@domain.com, অথবা DaddysLittleGirl@domain.com ইত্যাদি ব্যবহার করেন। এটি সিভিতে খুবই দৃষ্টিকটু লাগে। আপনার নামে যদি ভালো ইমেইল না থাকে তাহলে আপনার নাম দিয়ে ইমেইল খুলে নিন। শুধু খুললেই হবে না নিয়মিত ব্যবহারও করবেন।

সবাইকে পাঠাবেন না
আপনি কি এমন মেইল পড়বেন যেটি আপনাকে উদ্দেশ্য করে লেখা হয় নাই? পড়বেন না। তাই সিভি পাঠানোর সময় সবাইকে একসাথে পাঠাবেন না। কোনও কোনও ক্ষেত্রে গ্রুপ ইমেইল ব্লক থাকতে পারে। তাই সিভি পাঠানোর সময় একজনকেই পাঠান। আর সম্ভব হলে তাকে উদ্দেশ্য করে ইমেইল বডিতে ইমেইলটির বিষয়বস্তু সম্পর্কে লিখুন।