হরেক রকম বাজারঃ সুকিজি ফিশ মার্কেট

Tsukiji Fish Market

জাপানের সুকিজি ফিশ মার্কেট (Tsukiji Fish Market) পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পাইকারি মাছ ও সামুদ্রিক মাছের বাজার। শুধু তাই নয়, এটি পৃথিবীর অন্যতম বৃহৎ খাবারের বাজার হিসেবেও স্বীকৃত।

জাপানের রাজধানী টোকিওর কেন্দ্রস্থলে সুকিজি নামক স্থানেই এই বাজার অবস্থিত। এর পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে সুমিদা নদী। টোকিওর মেট্রোপলিটান সেন্ট্রাল হোলসেল মার্কেট এই বাজারের দেখাশোনা করে।

Safe Internet

সুকিজি মার্কেটের দুটি অংশ রয়েছে। বাইরের অংশ এবং ভেতরের অংশ। ভেতরের অংশটাই মূল অংশ। এখানে প্রায় ৯০০ পাইকারি বিক্রেতার দোকান রয়েছে এবং বেশীরভাগ মাছের নিলাম এবং কাটাকাটি চলে এখানেই। বাইরের অংশে পাইকারি ও খুচরা দুই ধরণের দোকানই রয়েছে। মাছের দোকান ছাড়াও এখানে গৃহস্থালি পণ্যের দোকান, মুদি দোকানসহ বিভিন্ন ধরণের রেস্টুরেন্ট রয়েছে।

প্রায় ৪০০ ধরণের সামুদ্রিক মাছ ও অন্যান্য খাবার রোজ এখানে বেচাকেনা চলে। এদের মধ্যে সামুদ্রিক সিউইড থেকে শুরু করে অত্যন্ত ব্যয়বহুল ক্যাভিয়ারও (মাছের ডিম) বিক্রি হয়। ছোট ছোট সার্ডিন মাছ থেকে শুরু করে ৩০০ কেজির টুনা মাছ- সবকিছুই পাওয়া যায় এখানে। খুঁজলে কিছু তিমি ও হাঙরের প্রজাতিও পাওয়া যায় কিনতে, যদিও এগুলো নিয়ে বেশ বিতর্ক রয়েছে। এ বছরের শুরুর দিকে এ বাজারেই ২২২ কেজি ওজনের একটি প্যাসিফিক ব্লুফিন টুনা মাছ বিক্রি হয় প্রায় ৯৩ লাখ টাকায়। টোকিওতে অবস্থিত ৩টি মাছের বাজার (বাকি দুটি হচ্ছে কান্দা ও কোতো ফিশ মার্কেট) মিলিয়ে বছরে প্রায় ৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সমমূল্যের মাছ বেচাকেনা হয়।

সুকিজি মার্কেট খোলে সাধারণত ভোর ৩টার দিকে (রবিবার ও অন্যান্য ছুটির দিন ছাড়া)। তবে এই বাজার সবচেয়ে ব্যস্ত সময় পার করে সকাল ৫.৩০ থেকে ৮টা পর্যন্ত। নিলাম শুরু হয় ৫টার কিছু পরে। শুধুমাত্র লাইসেন্সধারীরাই এসব নিলামে অংশ নিতে পারেন। ১০টার দিকেই সব নিলাম শেষ হয়ে যায় এবং ১১টায় মার্কেট বন্ধ হয়ে যায়। আশপাশ এবং দূর দুরান্ত এমনকি বিদেশ থেকে ক্রেতারা এসে এই বাজার থেকে মাছ কিনে নিয়ে যায়।

শুধু ব্যবসা বাণিজ্যের জন্যই নয়, সুকিজি ফিশ মার্কেট টোকিওতে ঘুরতে আসা পর্যটকদের জন্য অন্যতম একটি আকর্ষণ। টোকিওতে আসলে সুকিজি মার্কেটের টুনা মাছের নিলাম না দেখলে আর এখানকার রেস্টুরেন্টে সামুদ্রিক মাছের স্বাদ চেখে না দেখলে এখানে আসাটাই বৃথা। এ জায়গার সুশিও বেশ বিখ্যাত। সুকিজি বাজারের ঘোরার জন্য সেরা সময় হচ্ছে সকাল ৫টা থেকে ৭টা। বেশীরভাগ নিলাম এ সময়েই হয়ে থাকে। তবে নির্বিঘ্ন কেনাবেচার জন্য মার্কেটের ভেতরের অংশে পর্যটকদের যাওয়া নিষেধ। তারা শুধু বাইরের অংশেই ঘুরতে পারবেন। প্রয়োজনে বাইরের অংশেও পর্যটকদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে পারে পুলিশ। দুই ধাপে মাত্র ১২০ জন পর্যটক ঘুরতে পারেন একদিনে। আর তার জন্য আগে থেকে করতে হবে রেজিস্ট্রেশন।