কিসমিস ভেজানো পানি খাওয়ার উপকারিতা

raisins
ছবি : সংগৃহীত

আমরা সেমাই, পায়েস কিংবা পোলাওয়ে কিসমিস খেয়ে থাকি। এতে স্বাদ অনেক গুন বেড়ে যায়। কিসমিসের উপকারিতার মধ্যে রয়েছে কোষ্ঠকাঠিন্য, অম্ল, রক্তস্বল্পতা, জ্বরসহ বিভিন্ন রোগ থেকে মুক্তি। এছাড়া কিসমিস খাওয়ার মাধ্যমে স্বাস্থ্যকর উপায়ে শরীরের ওজন বাড়ানো যায়, একইসাথে স্বাস্থ্য, দাঁত ও হাড়ের ক্ষেত্রে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে।

তবে কিসমিস ভেজানো পানি খাওয়ারও বেশ উপকারিতা রয়েছে। প্রতিদিন এক কাপ কিসমিস ভেজানো পানি খাওয়া স্বাস্থ্যকর।

Safe Internet

চলুন জেনে নিই কিসমিস ভেজানো পানি খেলে কী উপকার পাওয়া যায়-

• কিসমিসে পটাশিয়াম রয়েছে, যা হার্টকে ভালো রাখে এবং খারাপ কোলেস্টরল দূর করতে সাহায্য করে।

• এতে রয়েছে আয়রন, যা রক্তস্বল্পতা কমাতে বিশেষভাবে সাহায্য করে।

• কিসমিসে থাকা কার্বোহাইড্রেট শক্তি জোগায়।

• নিয়মিত কিসমিস খেলে বা কিসমিস ভেজানো পানি খেলে লিভারও ভাল থাকে। তাই যারা প্রায় পেটের নানা সমস্যায় ভোগেন তারা এই পানি খেলে বেশ উপকার পাবেন।

• কিসমিস ভেজানো পানি খেলে শরীরে জৈব রাসায়নিক প্রক্রিয়া শুরু হয়। যার ফলে রক্ত পরিশোধিত হয়।

• কিসমিস ভেজানো পানি খেলে লিভারের পাশাপাশি কিডনিও খুব ভালো থাকে। আর কিডনি ও লিভার দুটো ভালো থাকলে হজমও ভালোভাবে হয়।

কিসমিস ভেজানো পানি যেভাবে বানাবেন
২ কাপ জলে ১৫০ গ্রাম কিসমিস ভালোভাবে ধুয়ে সারারাত ভিজিয়ে রাখতে হবে। গাঢ় রঙের কিসমিস ব্যবহার করা ভালো। পরেরদিন সকালে কিসমিস ছেঁকে নিয়ে সেই পানি হালকা গরম করে খালি পেটে খেতে হবে। এরপর আধ ঘণ্টা অন্য কিছু খাবেন না। সপ্তাহে অন্তত তিনদিন এই পানি খেলে সুস্থ থাকবেন।