রাসেল টি আহমেদের নেতৃত্বে বেসিসের নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের অভিষেক

534

ক্লাসটিউন ও টিম ক্রিয়েটিভের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাসেল টি আহমেদ এর নেতৃত্বে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদ (২০২২-২০২৩) আনুষ্ঠানিকভাবে অভিষিক্ত হয়েছেন। গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরা (আইসিসিবি)-তে আয়োজিত অনুষ্ঠানে নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদকে শপথবাক্য পাঠ করান বেসিসের প্রাক্তন সভাপতি এ তৌহিদ।

অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু।

অনুষ্ঠানে নব-নির্বাচিত সভাপতি রাসেল টি আহমেদ বলেন, বেসিসের নতুন কার্যনির্বাহী পরিষদ তাদের প্রজ্ঞা ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে সকল সদস্য প্রতিষ্ঠানকে সাথে নিয়ে সামনে এগিয়ে চলবে। নতুন পরিষদ স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতার সাথে, সকলের প্রতি সম্মান বজায় রেখে, সংযুক্তি এবং দায়িত্ববোধ থেকে দায়িত্ব পালন করবে। সম্প্রতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আইসিটিকে ‘প্রোডাক্ট অব দ্য ইয়ার’ ঘোষণা করেছেন। আমরা বিশ্বাস করি, এই ঘোষণা শুধুমাত্র বেসিস বা তথ্যপ্রযুক্তি খাতের নয়, বাংলাদেশকে ২০৪১ সাল নাগাদ যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে সেটি বাস্তবায়নে সাহায্য করবে। নতুন পরিকল্পনার মাধ্যমে সেটি বাস্তবায়নে কাজ করবো। আমরা দেশের জিডিপিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতে ও বেসিসের সকল সদস্য কোম্পানির ব্যবসায় সম্প্রসারণে স্থানীয় বাজার ও আন্তর্জাতিক বাজার নিয়ে কাজ করবো। এজন্য দক্ষ জনশক্তি তৈরি, ব্যবসায়বান্ধব নীতিমালা তৈরি, নতুন বাজার খোঁজা, তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ব্র্যান্ডিং ও মূলধন/বিনিয়োগের বিষয়গুলোকে সামনে রেখে কাজ করা হবে। আমরা বিশ্বাস করি, প্রতিটি সদস্যের উন্নয়ন মানেই বেসিসের উন্নয়ন, বেসিসের উন্নয়ন মানে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাত ও সর্বোপরি বাংলাদেশের উন্নয়ন। সেই বিষয়টিকে মাথায় রেখে আগামী দুই বছর আমরা সম্মিলিতভাবে কাজ করে যাবো।

প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, বেসিস শুধুমাত্র সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্যই নয়, দেশের সমগ্র আইসিটি খাত নিয়েই কাজ করে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আইসিটিকে ‘প্রোডাক্ট অব দ্য ইয়ার’ ঘোষণা করার মাধ্যমে এই সেক্টরকে নতুন সম্ভাবনার দিয়ে এগিয়ে দিয়েছেন। সেই চ্যালেঞ্জকে বাস্তবায়নে বেসিসকে প্রয়োজনীয়তা সহযোগিতা প্রদান করা হবে। একইসাথে সফটওয়্যার কোম্পানিগুলোর বিনিয়োগেও সহায়তা করা হবে।

বিশেষ অতিথি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেন, বেসিসের কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি কোম্পানিগুলোর উন্নয়ন ও তাদের আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধিতে যে অগ্রণী ভূমিকা রাখে তা প্রশংসনীয়। আমাদের তথ্যপ্রযুক্তি খাত বড় হচ্ছে। সম্ভাবনা বাড়ছে। স্বপ্নটাও অনেক বড় করে দেখতে হবে। সফটওয়্যার তৈরির পাশাপাশি, আশাকরি তারা স্টার্টআপ, মেশিন লার্নিং, ব্লকচেইন, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সির মত বিষয়গুলাতে তরুণদের দক্ষ করে তুলবে এবং প্রযুক্তিনির্ভর অর্থনীতির দিকে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। সে পথচলায় শতভাগ, নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ নিয়ে সবসময় বেসিসের পাশে থাকবে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বেসিসের নবনির্বাচিত জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি সামিরা জুবেরী হিমিকা, সহ-সভাপতি (প্রশাসন) আবু দাউদ খান, সহ-সভাপতি (অর্থ) ফাহিম আহমেদ, পরিচালক হাবিবুল্লাহ্ নেয়ামুল করিম, একেএম আহমেদুল ইসলাম বাবু, মুশফিকুর রহমান, সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল, তানভীর হোসেন খান, মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল এবং রাশাদ কবির। এছাড়া অনুষ্ঠানে বেসিসের সাবেক সভাপতি শামীম আহসান, সৈয়দ আলমাস কবীরসহ বিদায়ী কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্যবৃন্দ, বেসিসের সাবেক কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ, বেসিসের সদস্য কোম্পানির প্রতিনিধিবৃন্দ, বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ২৬ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখে বেসিসের ২০২২-২০২৩ মেয়াদের কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।