আইফোনকে করে তুলুন আরো গতিময়

1428

আপনি সর্বশেষ মডেলের আইফোন ৬-এস ব্যবহার করুন বা কয়েক বছরের পুরনো মডেল ব্যবহার করুন আপনি অবশ্যই চান আপনার আইফোনটি আরও দ্রুত হোক আর বেশিক্ষণ চার্জ থাকুক। যদিও আইফোন ৬-এস বর্তমানে পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুতগতিসম্পন্ন স্মার্টফোন কিন্তু কে চাইবে না যে তার ফোনটি আরেকটু বেশি দ্রুত কাজ করুক। আর আইফোনের কম মিলিএম্পায়ারের ব্যাটারি নিয়ে সবারই কমবেশি অভিযোগতো রয়েছে।

ClassTune

তবে কিছু কৌশল অবলম্বন করলে আপনার আইফোনটিও দ্রুত কাজ করবে এবং ব্যাটারি ব্যাকআপ দিবে দীর্ঘক্ষণ। সেরকমই কিছু টিপস দেয়া হল এখানে।

১. র‍্যাম পরিষ্কার করুন
র‍্যাম আপনার ফোনের গতি বাড়িয়ে দেয়। তাই নিয়মিত ফোনের র‍্যাম পরিষ্কার রাখুন। প্রয়োজনে মাঝে মাঝে আইফোন রিবুটও করতে পারেন।

২. ক্যাশ পরিষ্কার রাখুন
ক্যাশ বিল্ডআপ আপনার আইফোনে অহেতুক জট সৃষ্টি করে ফোনের গতি মন্থর করে দেয়। তাই নিয়মিত আইফোনের ক্যাশ পরিষ্কার করুন।

৩. মেসেজ ডিলিট করুন
আপনার আইফোনের মেসেজ অপশনে জমে থাকা পুরনো মেসেজ আপনার মেজেস অ্যাপ সেই সাথে পুরো ফোনটিকেই মন্থর করে দেয়। মেসেজে ছবি ভিডিও আদানপ্রদান করলে অনেক জায়গাও নষ্ট করে। তাই অপ্রয়োজনীয় পুরনো মেসেজগুলো মুছে ফেলুন।

৪. অ্যানিমেশন বন্ধ রাখুন
নতুন অ্যাপ ওপেন করার সময় বা এক অ্যাপ থেকে অন্য অ্যাপে যাওয়ার সময় আইফোন কিছু অ্যানিমেশন দেখায় যেগুলো দেখতে বেশ ভালো লাগে। কিন্তু এই অ্যানিমেশনগুলো আইফোনকে স্লো করে দেয় এবং ব্যাটারি খরচ করে প্রচুর। তাই এসব অ্যানিমেশন চাইলে বন্ধ করে রাখতে পারেন।

৫. ওয়াই-ফাই এসিস্ট চালু রাখুন
আইফোনের নতুন ফিচারে যদি আপনার ওয়াই-ফাই সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় তাহলে সাথে সাথে আপনার সেলুলার ডাটা অন হয়ে যাবে যদি আপনি ওয়াই-ফাই এসিস্ট চালু করে রাখেন। এটি আপনার আইফোনের পারফর্মেন্স ভালো করবে এবং চার্জ সংরক্ষণ করবে। তবে যারা সীমিত ডাটা ব্যবহার করেন তাদের জন্য এটি ব্যয়সাপেক্ষ।

৬. লো পাওয়ার মুড চালু করুন
আইফোনের চার্জ যখন ২০% এবং ১০% এর নিচে নেমে আসে তখন ব্যাটারির জীবনকাল কিছুটা বাড়ানোর জন্য লো পাওয়ার মুড নামের একটি অপশন দেয়া হয়। এটি কয়েক ঘণ্টা পর্যন্ত আপনার ব্যাটারির জীবনকাল বাড়িয়ে দিতে পারে। তবে এটি যেকোনো সময়ই অন করা যায়।

৭. লোকেশন সার্ভিস বন্ধ রাখুন
কিছু অ্যাপ সবসময় আপনার লোকেশন জানান দিয়ে আপনাকে সাহায্য করে। কিন্তু আইফোন অনেক অপ্রয়োজনীয় অ্যাপই লোকেশন সার্ভিস চালু করে রাখে। এগুলো বন্ধ করে দিয়ে আইফোনের ব্যাটারি সংরক্ষণ করুন।

৮. ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ রিফ্রেশ বন্ধ রাখুন
আপনি কোন কোন অ্যাপ ব্যবহার করে বন্ধ করে দেয়ার পরও সেটি ব্যাকগ্রাউন্ডে চালু হয়ে থাকে এবং নিয়মিত আপডেট নিতে থাকে। তাই সেটিংস মেন্যুতে গিয়ে ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ রিফ্রেশ ডিজেবল করে দিন। এটি আইফোনের চার্জ সংরক্ষণ করবে।