চীনে ধরা পড়ল জায়ান্ট সালাম্যান্ডার

2078

দক্ষিণপশ্চিম চীনের চোংকিং নামক এলাকায় এক জেলে একটা গুহার ভেতর মাছ ধরার সময় অসাবধানতাবশত নরম আর থকথকে কোন কিছুর উপর পা দিয়ে ফেলেন। মাছ ভেবে সেটাকে টেনে উপরে তুলতেই আসল রহস্য উদঘাটিত হয়।  ওয়াং ইয়ং নামের সেই জেলে এভাবেই বিশালাকৃতির এক জায়ান্ট সালাম্যান্ডারের খােঁজ পান।

ClassTune

পরে জানা যায়, আবিষ্কৃত এই সালাম্যান্ডারটির বয়স প্রায় ২০০ বছর। এটি অত্যন্ত দুর্লভ প্রজাতির। বর্তমানে এটি পৃথিবীর সবচেয়ে বড় এবং বয়স্ক সালাম্যান্ডার। এটি লম্বায় সাড়ে ৪ ফুট এবং ওজনে প্রায় ৫০ কেজি। বর্তমানে পরিবেশবিদদের নিবিড় পর্যবেক্ষনে রয়েছে এটি।

এই সালাম্যান্ডারকে জীবন্ত জীবাশ্ম নামের ডাকা হয়ে থাকে। Cryptobranchidae পরিবারের এই সালাম্যান্ডার প্রজাতি ১৭০ মিলিয়ন বছর আগে পৃথিবীতে এসেছিল। এই কারণেই এদের এই নামে ডাকা হয়।

বয়স ঠিকঠাক থাকলে এই জায়ান্ট সালাম্যান্ডার ১৮১৫ সালে জন্ম নিয়েছিল। আরো সহজ করে বললে আমেরিকান প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিঙ্কনের জন্মের ৬ বছর পরে এর জন্ম। তবে সালাম্যান্ডারটির বয়স কীভাবে নির্ধারণ করা হয়েছে সে ব্যাপারে পরিষ্কার ধারণা পাওয়া যায়নি। এই প্রজাতির সালাম্যান্ডার সাধারণত ৮০ বছর বেঁচে থাকে।

এই চাইনিজ জায়ান্ট সালাম্যান্ডাররা বিলুপ্তির ঝুঁকিতে রয়েছে এবং এদের সংরক্ষণ করা হচ্ছে।

একসময় এই সালাম্যান্ডার প্রচুর পরিমাণে দেখা যেত। কিন্তু ১৯৫০ সালের পর থেকে এদের সংখ্যা প্রায় ৮০ শতাংশ কমে যায়। ক্রমশ এদের দেখা পাওয়াই দুষ্কর হয়ে পড়ে। আবাসস্থল ধ্বংস এবং অতিরিক্ত মাত্রায় শিকার করার কারণেই এমনটা ঘটেছে।

তবে ধন্যবাদ ওয়াং ইয়ংকে যিনি এটিকে না খেয়ে বরং বিজ্ঞানীদের খবর দিয়েছেন। তারা এসে বুঝতে পারেন সালাম্যান্ডারটি অসুস্থ এবং এর সঠিক পরিচর্যা দরকার।