দুর্লভ আমুর ব্যাঘ্র শাবকের জন্ম

1478

২০১২ সালে জোলাশকাকে (রাশিয়ান ভাষায় সিন্ডেরেলা) পাওয়া যায় মুমূর্ষু অবস্থায়। চার মাস বয়সী এই আমুর টাইগারটিকে একা এবং রুগ্ন অবস্থায় রাশিয়ার প্রিমরস্কি ক্রাই নামক এলাকায় পাওয়া যায়। দুর্লভ আমুর বাঘের শেষ আবাসস্থলগুলোর একটি এই এলাকা।

ClassTune

সিন্ডেরেলাকে উদ্ধার করে তাকে প্রয়োজনীয় সেবা দিয়ে সুস্থ করে তোলা হয় এবং ছেড়ে দেয়া হয় রাশিয়ার দূর পূর্বাঞ্চলের বাস্তাক রিজার্ভে।

মাদি এই বাঘটি দ্রুত সেই অঞ্চলের আবহাওয়ার সাথে নিজেকে খাপ খাইয়ে নেয় এবং প্রয়োজনমত শিকার করে খেতে সক্ষম হয়। তবে একটাই সমস্যা ছিল, এই অঞ্চলে সেন্ডেরেলাই ছিল তার জাতের একমাত্র বাঘ। বিগত ৪০ বছরে এই রিজার্ভে কোন আমুর টাইগার দেখা যায়নি।

কিন্তু তারপরও সিন্ডেরেলা মা হয়েছে এবং এখন সে দুটি শাবকের মা।

বহুদিন ধরেই ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটি সিন্ডেরেলাকে অনুসরণ করছিল। ছবি এবং ভিডিও ফুটেজ দেখে তারা সম্প্রতি এ ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছে।

সংরক্ষিত এই এলাকার পরিচালক অ্যালেক্সান্ডার ইউরিভিচ কালিনিন বলেন, ‘এটি নিঃসন্দেহে বাস্তাক রিজার্ভের জন্য একটি গর্ব করার বিষয়। এর মাধ্যমে প্রমাণিত হয় যে এই অঞ্চল এখনো প্রাণীকুলের বসবাস এবং বংশবৃদ্ধির জন্য উপযোগী’।

আমুর বা সাইবেরিয়ান বাঘ একটি বিপদাপন্ন প্রজাতির বাঘ। সারা বিশ্বে বন্য পরিবেশে এই প্রজাতির বাঘ আছে সাকুল্যে মাত্র ৫০০টি। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, বিগত ১০০ বছরে পৃথিবীর বাঘের সংখ্যা কমে গিয়েছে ৯৭ শতাংশ। অবৈধ শিকার, আবাসস্থল ধ্বংস এবং রোগবালাই এর প্রধান কারণ।

রাশিয়ার ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটির পরিচালক ড্যাল মিকেলা বলেন, ‘নতুন এই শাবকের জন্ম নেয়া থেকে অনুমান করা যাচ্ছে, আমুর টাইগাররা আবার তাদের আবাসস্থলে ফিরে আসতে পারে এবং এদের সংখ্যাও বৃদ্ধি পেতে পারে’।