নক্ষত্র ভূবনের গল্প

star

মহাবিশ্ব যে কত বড় তা মনে হয় আমদের অনেকের কাছেই অজানা। অনেক বিজ্ঞানী মনে করেন মহাবিশ্বের শুরু ও শেষ নেই। মানুষ প্রতিনিয়তই মহাবিশ্ব সম্পর্কে নতুন নতুন তথ্য আবিষ্কার করছে, এর অনেক কিছুই এখনও অজানা রয়ে গেছে। এই অজানা হয়তো চিরকালই থাকবে।

আমাদের এই বাসভূমি পৃথিবীর চারিদিকে ঘিরে রয়েছে অসীম আকাশ। এই অসীম আকাশের দিকে তাকালে দিনে সূর্য ও রাতে চাঁদসহ অসংখ্য আলোকবিন্দু চোখে পড়ে। এই আকাশের শুরু ও শেষ বলতে কিছু নেই। আদি-অন্তহীন এই আকাশকে মহাকাশ বলে। মহাকাশে অসংখ্য জ্যোতিষ্ক রয়েছে। এদের কোনো কোনোটার আলো আছে বা কারও আলো নেই।

ClassTune

যেসব জ্যোতিষ্কের নিজস্ব আলো আছে তাদের নক্ষত্র বলা হয়। রাতের আকাশে অনেক অনেক আলোক বিন্দু মিটমিট করে জ্বলতে দেখা যায়। আলো দেওয়া এসব জ্যোতিষ্ককে নক্ষত্র বলা হয়। খালি চোখে আমরা মাত্র কয়েক হাজার নক্ষত্র দেখতে পারি। এদের আবার কয়েকটি পৃথিবী থেকে শক্তিশালী দূরবীক্ষণ যন্ত্রের সাহায্যে দেখতে পাওয়া যায়।

নক্ষত্র হাইড্রোজেন ও হিলিয়াম গ্যাস দিয়ে তৈরি । এই গ্যাস অতি উচ্চ তাপমাত্রায় জ্বলছে যা প্রায় ৬০০০ সেলসিয়াস এর কাছাকাছি। এদের সকলের নিজের আলো ও উত্তাপ আছে।

সূর্য একটি নক্ষত্র। পৃথিবী থেকে এর দূরত্ব অন্য সব নক্ষত্র থেকে অনেক কম বলে একে অনেক বড় দেখায়। সূর্যের প্রখর আলোর কারণে দিনের বেলায় অন্য নক্ষত্রগুলো দেখা যায় না।

পৃথিবী ও নক্ষত্রের মধ্যে এমনকি নক্ষত্রের পরস্পরের মধ্যে দূরত্ব এতই বেশি যে যা কিলোমিটার দিয়ে প্রকাশ করা যায় না। তাই, এই দূরত্ব আলোকবর্ষ দিয়ে মাপা হয়। আলো প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ৩ লক্ষ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে। এই বেগে আলো এক বছরে যে দূরত্ব অতিক্রম করে তাকে ১ আলোক বর্ষ বলে।

সূর্য পৃথিবীর নিকটতম নক্ষত্র। সূর্য থেকে পৃথিবীতে আলো আসতে সময় লাগে ৮ মিনিট ১৯ সেকেন্ড। সূর্য ও পৃথিবীর মধ্যবর্তী দূরত্ব প্রায় ১৫ কোটি কিলোমিটার।

সূর্যের নিকটতম নক্ষত্র Proxima Centauri  বা প্রক্সিমা সেনটোরাই । পৃথিবী থেকে এর দূরত্ব প্রায় ৪.২ আলোকবর্ষ যা প্রায় ৮ লক্ষ কোটি কিলোমিটারের সমান।

মেঘমুক্ত অন্ধকার রাতে আকাশের দিকে তাকালে মনে হয় কয়েকটি নক্ষত্র বিশেষ আকৃতিতে মিলে জোট বেঁধে থাকে। এই নক্ষত্রদলকে নক্ষত্রমণ্ডলী (Constellation) বলা হয় । এদের কোনোটা দেখতে ভল্লুকের মতো , কোনোটা শিকারির মতো। এদের অনেকের নামই আমাদের জানা। সপ্তর্ষিমণ্ডল(Great Bear ), কালপুরুষ(Orion) এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ।