পাশাপাশি বহমান নদী মেশে না জল!

2746

তেল জলে মিশ খায় না বটে তবে জলে জলে ঠিকই মেশে। দুইটি নদীর পানি একসাথে মিলে যাওয়া খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু দুই নদীর পানি যখন একসঙ্গে না মিশে আলদাভাবে পাশাপাশি বয়ে চলে তখন তা সবাইকে হতবাক করে দেয়।

প্রকৃতি তার নিজস্ব কিছু রহস্য নিয়ে খেলতে পছন্দ করে এবং সেই রহস্য অবশ্যই অসাধারণ সৌন্দর্য বহন করে। তরল-তরল দ্রবনের তত্ত্ব অনুযায়ী ব্যাপনে অনেক সময় লাগার কারনে নদী দুইটি মিলিত হবার পর তাদের জলের রঙে ভিন্নতা দেখা যায়।

ClassTune

পানি এবং তেল দুটি তরল হওয়া সত্ত্বেও তেল এর ঘনত্ত্ব বেশি হওয়ায় তা পানির সাথে মিশে না। এরকমই নানা কারনে যেমন পলিমাটির আধিক্য, সামুদ্রিক বর্জ্য, সামুদ্রিক জীব ইত্যাদি নদী বা উপসাগরের পানি পাশাপাশি থাকলেও, তারা মিশে যায় না বা তাদের রঙে ভিন্নতা দেখা যায়।

এমন কিছু চোখে পড়ার মতো উদাহরন হল:

• আলাস্কা উপসাগর (The gulf of Alaska)
যদিও আলাস্কা উপসাগরের পানি একই কিন্তু এই উপসাগরের পানির মধ্যে রঙের ভিন্নতা দেখা যায়। উপসাগরে পানির স্রোতের কারনে হালকা বিদ্যুৎ প্রবাহিত হয়। স্বাতন্ত্র বর্জ্য ও অতিরিক্ত পরিমানের মাটি যার মধ্যে আয়রনের উপস্থিতির কারনে রঙে ভিন্নতা দেখা যায়। যখন দুইপাশের পানিতে বিদ্যুৎ প্রবাহে ভিন্নতা সৃষ্টি হয় তখন রং পরিবর্তন হতে থাকে।

• থম্পসন ও ফ্রাসার নদীর মোহনা, কানাডা (Thompson and Fraser Rivers, Canada)
থম্পসন নদী ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার তৃতীয় বৃহত্তম নদী। ফ্রাসার কানাডার সবচেয়ে বড় নদী। যখন এ দুটি নদী মিলিত হয় তখন তাদের পানি স্পষ্ট আলাদা বুঝা যায়। ফ্রাসার নদীর পানি পলিমাটি বিশিষ্ট, এ কারনে নদীর পানির রঙটি দেখলে কর্দমাক্ত মনে হয়।

• আলোকণন্দ ও ভাগীরথী নদী, দেবপ্রায়াগ, ভারত ( Alaknanda and Bhagirathi Rivers, Devprayag, India)
আলোকনন্দ ও ভাগীরথী দুটি নদীরই উৎপত্তি হিমালয় থেকে। হিন্দু ইতিহাস ও সংস্কৃতিতে এই মোহনার অনেক গুরুত্বপূর্ণ স্থান রয়েছে। জলজ জীবাশ্মের আধিক্য থাকায় একপাশের পানির রঙ গাঢ় সবুজ এবং পলিমাটির আধিক্যের কারনে একপাশের পানির রঙ হালকা বাদামী।

• জিয়ালইং ও ইয়াংতেয নদী, চীন ( Jialing and Yangtze Rivers ,China)
পাশাপাশি দুইটি নদী হওয়া সত্ত্বেও জিয়ালিং নদীর পানি অনেক স্বচ্ছ এবং অনেক ধরনের মাছ দিয়ে ভরা। অপরদিকে ইয়াংতেয নদীর পানি অপরিষ্কার ও ঘোলাটে। ইয়াংতেয নদী এশিয়ার সবচেয়ে বড় নদী। এই নদীটি চীনা সংস্কৃতিতে অনেক গুরুত্বপূর্ণ হলেও কলকারখানার দূষণে নদীর পানি বাদামী হয় গেছে।

• রোণ ও আরভে নদী, সুইজারল্যান্ড ( Rhone and Arve Rivers, Switzerland)
ইউরোপের উল্লেখযোগ্য নদীগুলাের মধ্যে রোন অন্যতম। পাশাপাশি বহমান রোন নদীর পানি খানিকটা স্বচ্ছ অপরদিকে আরভে নদীর পানি অনেক পলিমাটিপূর্ণ হওয়ায় এর রঙ হালকা বাদামী।

আমাদের দেশের চাঁদপুরের মোহনায় পদ্মা ও মেঘনা নদীর মিলনস্থলেও দুটি নদীর পানির রঙে স্পষ্ট পার্থক্য চোখে পড়ে। পলিমাটির তারতম্যের কারনে মেঘনা নদীর পানি পদ্মার পানির চেয়ে বেশি ঘোলাটে।