ব্রুস লি-র ১০ অজানা

Bruce Lee
ছবি : সংগৃহীত

ব্রুস লি কে আমরা কে না চিনি। বিশ্বসেরা একজন মার্শাল আর্ট শিল্পী হিসেবে তার জনপ্রিয়তা আকাশছোঁয়া। একই সঙ্গে তিনি অভিনয় করেছেন হলিউডের ৭টি চলচ্চিত্রে এবং অনেকগুলো টিভি অনুষ্ঠানে। ১৯৪০ সালে সানফ্রান্সিসকোর চায়নাটাউনে জন্মগ্রহণ করেন ব্রুস লি। মাত্র ৩২ বছর বয়সে ১৯৭৩ সালে তিনি হংকংয়ে মারা যান। কিংবদন্তি এই মার্শাল আর্টিস্ট সম্পর্কে আমাদের অনেক কিছুই অজানা :

১। বেশিরভাগ মানুষ ব্রুস লি কে চাইনিজ মনে করলেও তিনি মূলত হংকং-আমেরিকান।

ClassTune

২। ব্রুস লি’র পরিবার প্রথমে তাকে ডাকতো ‘সাই-ফোন’ নামে। এর অর্থ হচ্ছে ‘স্মল ফিনিক্স’। উল্লেখ্য এই নামটি মেয়েদের নাম হিসেবেই পরিচিত।

৩।  ১৩ বছর বয়সে ব্রুস লি ‘উইন চুন’ নামক মার্শাল আর্টের একটি কৌশল শিখতে যান আরেক কিংবদন্তি শিক্ষক ‌’ইপম্যানের’ কাছে। এই কিংবদন্তিকে নিয়ে ইপম্যান-১, ইপম্যান-২ এবং ইপম্যান-৩ মানে তিনটি সিনেমা নির্মাণ করা হয়েছে।

৪। ব্রুস লি নামকরা একজন চা-চা ড্যান্সার ছিলেন। ১৯৫৮ সালে তিনি হংকং চা-চা ড্যান্স চ্যাম্পিয়নশিপে বিজয়ী হন।

৫। ব্রুস লি’র গোপন শখ ছিল কবিতা লেখা।

৬। মার্শাল আর্টিস্ট হলেও তিনি মূলত ফিলোসফি নিয়ে পড়াশোনা করেছেন।

৭। ৩০০ পাউন্ড ওজনের ব্যাগে কিক করে ব্রুস লি তার কিকিং প্র্যাকটিস করতেন।

৮। ১৯৬২ সালে ব্রুস লি একটি ফাইটে তার প্রতিপক্ষকে ১৫টি ঘুষি আর একটি লাথি দিয়ে পরাজিত করেন যাতে সময় লেগেছিল মাত্র ১১ সেকেন্ড।

৯। শূন্য থেকে চপস্টিক দিয়ে একটি চালের দানা ধরতে পারার অসাধারণ ক্ষমতা ছিল ব্রুস লি’র।

১০। ব্রুস লি জীবনে কোনোদিন কোন ফাইটে পরাজিত হয়নি।