মোজার্ট অফ চেস

রাশিয়ার সচিতে এ বছরের ৭ থেকে ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়নশিপ-২০১৪ (World Chess Championship 2014)। এ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন নরওয়ের ম্যাগনাস কার্লসেন।

২৪ বছর বয়সী ম্যাগনাস ফাইনালে ৬.৫-৪.৫ স্কোরে পরাজিত করেন ভারতের বিশ্বনাথ আনন্দকে (৪৪ বছর বয়সী)। গত বছরও ম্যাগনাস কার্লসেন বিশ্ব দাবা চ্যাম্পিয়নশিপের বিজয়ী ছিলেন।

২০১০ সালে কনিষ্ঠতম দাবাড়ু হিসেবে বিশ্বের এক নম্বর র‍্যাংকিংয়ে নাম লেখান তিনি। সে সময় ম্যাগনাসের বয়স ছিল ১৯ বছর।

ম্যাগনাস দাবা খেলা শুরু করেন মাত্র ৫ বছর বয়স থেকে। ১৩ বছর বয়সে তিনি গ্র্যান্ডমাস্টার খেতাব পান। এই খেতাব পৃথিবীর সবচাইতে ভালো দাবাড়ুদেরকেই দেয়া হয়ে থাকে। যেমনঃ আমাদের দেশের গ্র্যান্ডমাস্টার নিয়াজ মোরশেদ।

এবার জেনে নেই ম্যাগনাস কার্লসেনের দাবা সর্ম্পকিত কিছু অসাধারণ গুনের কথা। বিশ্ববিখ্যাত এই দাবাড়ু একই সময়ে একই সাথে একাধিক দাবা গেম খেলতে পারেন। শুধু তাই নয়, দাবা খেলায় তিনি এতোটাই দক্ষ যে তিনি দাবার বোর্ডের দিকে না তাকিয়েও দাবা খেলতে পারেন।

শুধুমাত্র কেউ যদি তাকে তার প্রতিপক্ষের চালগুলো বলে দেন তাহলেই তিনি চোখ বন্ধ করে দাবা খেলা চালিয়ে যেতে পারেন। এ কারনে অনেকেই তাকে ‘মোজার্ট অফ চেস’ বলে ডাকে। ম্যাগনাস শুধু একজন দাবাড়ুই নন, পাশাপাশি তিনি একজন মডেলও বটে।

একটি পোশাক কোম্পানির মডেল হিসেবে তাকে কিছুদিন আগেই দেখা গিয়েছে। তার নামে ‘প্লে ম্যাগনাস’ নামের দাবা খেলার একটা অ্যাপও রয়েছে।