গুপ্তধনে ঠাসা কফিন!

1567

গ্রীসে অবস্থানকারী মার্কিন প্রত্নতত্ত্ববিদেরা প্রাচীন এক যোদ্ধার কঙ্কাল খুঁজে পেয়েছেন। প্রায় সাড়ে ৩ হাজার বছর ধরে কারও হাত পড়েনি এখানে। শুধু তাই নয়, এই কঙ্কালের সাথে পাওয়া গিয়েছে বিপুল পরিমাণ ধনসম্পদ। এমনটাই জানিয়েছে গ্রীসের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয় আরও জানায়, গ্রীসের এই অঞ্চলে গত ৬৫ বছরে এমন কোন গুরুত্বপূর্ণ গুপ্তধন আবিষ্কৃত হয়নি।

কাঠের কফিনে পাওয়া এই দেহাবশেষ কার ছিল তা জানা যায়নি তবে বোঝা যাচ্ছে তিনি একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ছিলেন। গ্রীসের পেলোপনিজ পেনিনসুলায় মায়সেনিয়ান আমলের প্রাসাদ ‘প্যালেস অফ নেস্টর’ এ পাওয়া গিয়েছে এই কফিন।

তার লাশটি স্বর্ণের অলংকার দিয়ে সাজানো ছিল। মুক্তার মালা, স্বর্ণের আংটি, স্বর্ণ আর হাতির দাঁতের তৈরি হাতলওয়ালা ব্রোঞ্জের তলোয়ার এসবও পাওয়া গিয়েছে।

ইউনিভার্সিটি অফ সিনসিনাটির প্রত্নতত্ত্ববিদেরা জানান, প্রায় ১৪০০টি বিভিন্ন রকম মূল্যবান সম্পদ পাওয়া গিয়েছে যেগুলোতে মায়সেনিয়ান যুগের স্পষ্ট ছাপ রয়েছে।

খ্রিষ্টপূর্ব ২য় শতকের দিকে মায়সেনিয়ান সভ্যতা পেলোপনিজ অঞ্চল দিয়ে ভূমধ্যসাগরের চারিদিকে গড়ে উঠে।

কবরটি ২.৪ মিটার লম্বা এবং চওড়ায় ১.৫ মিটার। নেস্টর প্যালেসে খননকাজ চালানোর সময় এই কবরটি পাওয়া যায়। ১২শ থেকে ১৩শ খ্রিষ্টপূর্বাব্দের দিকে এই প্রাসাদ নির্মাণ করা হয়।