নবায়নযোগ্য জ্বালানি নিয়ে বিল গেটস

পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি এবং মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস সম্প্রতি তার এক নতুন পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন। তিনি নবায়নযোগ্য শক্তির খাতে তার বিনিয়োগ দ্বিগুণ করতে চলেছেন।

তিনি বিভিন্ন দেশের সরকারকেও একই অনুরোধ করেন। আর সবার মত জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে বিল গেটসও উদ্বিগ্ন। আর সেখান থেকেই তার এ নতুন পদক্ষেপ।

আগামী ৫ বছরে সবুজ প্রযুক্তির খাতে তার বিনিয়োগ বেড়ে ২ বিলিয়ন ডলার হবে বলে আশা করা হচ্ছে। আর এ অর্থ তিনি বিনিয়োগ করবেন সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে অনেক উচ্চতার বায়ুশক্তিকে কাজে লাগাচ্ছে এমন একটি প্রতিষ্ঠানে।

ইতোমধ্যেই গেটস প্রায় ১ ডজন নতুন ও বর্ধনশীল প্রতিষ্ঠানে প্রায় ১ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছেন। ব্যাটারি স্টোরেজ, কৃত্রিম পলিসিনথেসিস আর পারমাণবিক চুল্লি নিয়ে কাজ করছে এরা।

গেটস জানান, তিনি নিউক্লিয়ার রিসাইক্লিং-এর পিছনে প্রচুর অর্থ ব্যয় করেছেন। এর সিংহভাগই ব্যয় করা হয়েছে ‘টেরাপাওয়ার’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানে। তারা এমন একটি পারমাণবিক চুল্লি তৈরি করছে যেটা নিজের পারমাণবিক বর্জ্যকেই কাজে লাগিয়ে অনেক বছর ধরে চলতে পারবে।

তার আরেকটি পরিকল্পনা হচ্ছে সোলার কেমিক্যাল পাওয়ার নিয়ে কাজ করা। এই প্লান্টটি তৈরি করা হবে গাছ যে প্রক্রিয়ায় খাদ্য তৈরি করে সে অনুযায়ী। এখানে কৃত্রিম যন্ত্র সূর্য থেকে শক্তি নিয়ে তা দিয়ে পানি থেকে হাইড্রোজেন বের করবে এবং জ্বালানি উৎপাদন করবে।

নবায়নযোগ্য শক্তি নিয়ে বিল গেটসের এ ধরণের কর্মপরিকল্পনা ও উদ্যোগ সর্বমহলে অভিনন্দন পাচ্ছে।