ফ্লাইটটি পরিচালনা করবেন নারীরা

1273
ethiopian airlines

ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্স প্রথমবারের মত সব নারী ক্রু সমৃদ্ধ একটি ফ্লাইট চালু করেছে। নভেম্বরের ১৮ তারিখ এটি আদ্দিস আবাবা থেকে ব্যাংকক উড়ে যায়। এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা নারীর ক্ষমতায়ন এবং আফ্রিকান নারীদেরকে এভিয়েশন ক্যারিয়ারে উৎসাহিত করতেই এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের সিইও টুওল্ডে জেব্রেমারিয়াম বলেন, ‘সারা বিশ্বের নারীদের জন্যই এটি একটি অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে। বিশেষত আফ্রিকান নারী এবং যারা বিমানে কাজের সাথে জড়িত।

ClassTune

আফ্রিকান নারীরা এখনো ক্ষমতায়নের দিক থেকে অনেক পিছিয়ে আছে। তাই এই পদক্ষেপ আফ্রিকার স্কুলগামী মেয়েদের জানান দেবে যে, এভিয়েশনে তাদের জন্য একটি বড় সুযোগ অপেক্ষা করছে। তারা নিজেদের এই কাজের জন্য তৈরি করতে উৎসাহবোধ করবে’।

এই ফ্লাইটের প্রতিটি পদক্ষেপে কাজ করছে মেয়েরা। পরিকল্পনা থেকে শুরু করে বিমানটি নিয়ন্ত্রণ, পাইলট থেকে শুরু করে ট্র্যাফিক কন্ট্রোলার সবাই। এমনকি বিমান ব্যাংককে পৌঁছানোর পর কাস্টম এবং ইমিগ্রেশনের কাজও করবে সব নারী সদস্যরাই।

ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্স জানায় তাদের এক-তৃতীয়াংশ কর্মীই নারী। তবে পাইলট এবং টেকনিশিয়ানদের ক্ষেত্রে এই সংখ্যা অনেক কম।

২২ বছর বয়সী হায়মানতে এন্দালে একজন কেবিন মেইন্টেনেন্স টেকনিশিয়ান। ২ বছর ধরে তিনি ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সে কাজ করছেন। তিনি জানান, অনেক মেয়েই বিমানবালা হিসেবে ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সে কাজ করছে কিন্তু তাকে বেশিরভাগ সময়ই কাজ করতে হয় পুরুষদের সাথে।

তিনি আরও বলেন, ‘ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের বাইরের নারীরা মনে করে এখানে কাজ করা খুবই কঠিন। তাই তারা এখানে আসতে চায় না। কিন্তু আমরা এসে দেখেছি এখানে কাজ করা খুবই সহজ’।

রাজনীতি এবং ব্যবসায় ইথিওপিয়ার অনেক নারীরই সফল হবার দৃষ্টান্ত রয়েছে যেমন ইথিওপিয়ার ফার্স্ট লেডি রোমান তেসফায়ে।

উল্লেখ্য ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্স আফ্রিকার সবচাইতে ব্যবসাসফল এয়ারলাইন্স।