সেরা ১০ চকলেট

1543
choclate

বিভিন্ন স্বাদের চকলেট চেখে সেরা দশের তালিকা তৈরি করা নিঃসন্দেহে কঠিন। হয়তো মনে মনে বলছ, ‘আহা! এই “কঠিন” কাজের দায়িত্বটা আমাকে দিলেও হতো!’

১। অ্যামেডেই

ClassTune

চকলেট মানুষের পাঁচটি ইন্দ্রিয়তেই তোলপাড় ফেলে দেয়, এমনটাই বিশ্বাস করেন এই চকলেটের নির্মাতারা।তাই চকলেটটি দেখতে যেমন সুন্দর, কামড় বসালে কুড়মুড় শব্দটাও যেন শুনতে ভালোলাগে—এ নিয়েও তাঁরা নাকি রীতিমতো গবেষণা করেছেন!

২। লিওনিডাস

এই চকলেটের নির্মাতাদের স্লোগানটা বেশ মজার। ‘ডেমোক্রেসি ইন চকলেট’। অর্থাৎ, ‘চকলেটের গণতন্ত্র’।তাঁরা মনে করেন, তাঁদের চকলেট সবার জন্য সমান সুস্বাদু। ইতিমধ্যেই বিশ্বের দেড়হাজার চকলেটের দোকানে লিওনিডাস পাওয়া যাচ্ছে।এর রেসিপিতে ৭০ শতাংশই থাকে কোকোয়া (চকলেট তৈরির মূল উপাদান)।

৩। বভেটি

ইতালীয় প্রতিষ্ঠানটি বিচিত্র স্বাদের মোট ১৫০ ধরনের চকলেট বার তৈরি করে।মজার ব্যপার হলো, তাঁদের চকলেটের রেসিপির তালিকায় নাকি ধনিয়াও রয়েছে। ধনিয়ার সুবাস চকলেটে একটা ভিন্নস্বাদ আনে বলে তাঁরা মনে করেন।

৪। ভালরোনা

একে বলা হয় চকলেটের জগতের রোলস রয়েস (একটি বিলাসবহুল গাড়ি)।১৯২২ সাল থেকে এই চকলেট নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে চকলেট তৈরি করে আসছে। গত ৯০ বছর স্বাদ আর গন্ধ নিয়ে নানান গবেষণা চালিয়ে মজাদার সব চকলেট তৈরি করেছে এই ফরাসি প্রতিষ্ঠান।

৫। মিশেল ক্লুইজেল চকলেটস

মিশেল ক্লুইজেলের পরিবার বহু বছর ধরেই পেস্ট্রি তৈরি করে আসছে। পেস্ট্রির পাশাপাশি তাদের বানানো চকলেটও বিপুল জনপ্রিয়।ক্যারামেল মাশরুম আর ক্যাপাচিনো স্বাদ তাদের চকলেটের অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

৬। শারফেন বারগার

এই চকলেট বার তৈরি করে একটি বিখ্যাত আমেরিকান প্রতিষ্ঠান।প্রতিটি কামড়েই দুধ আর কিছুটা লবণাক্ত বাদামের স্বাদ তোমাকে মুগ্ধ করবে, সে নিশ্চয়তা দিচ্ছে শারফেন বারগার।

৭। রিপাবলিকা ডেল কাকাও

জীবনে একবার অন্তত এই চকলেটের স্বাদ চেখে দেখা ‘বাধ্যতামূলক’, এমনটাই মনে করছেন চকলেটপ্রেমীরা! কোকোয়া, চিনি এবং প্রচুর পরিমাণে কোকোয়া বাটার দেওয়া এই চকলেট তোমার কাছে কিছুটা তিতকুটে মনে হতে পারে। তবে এটাই নাকি এই চকলেটের আসল মজা!

৮। লিন্ত অ্যান্ড স্প্রুংলি

বহু বছর আগে চকলেট খাওয়া হতো পানীয় হিসেবে। সেই সময় থেকে লিন্ত অ্যান্ড স্প্রুংলির যাত্রা শুরু।যদি কখনো খাওয়ার সুযোগ হয়, এই চকলেট বারে খানিকটা কমলার স্বাদও পাবে তুমি।

৯। সোমা

এর নিবাস কানাডায়। ২০০৩ সালে যাত্রা শুরু হলেও ইতিমধ্যেই চকলেট প্রেমীদের জিবে জল আনতে শুরু করেছে সোমা।চকলেটটি তৈরিতে যেসব উপাদান ব্যবহার করা হয়, বেশির ভাগই বোধ হয়তোমাদের কাছে অপরিচিত ঠেকবে।

১০। ভোউস

তালিকায় ১০ নম্বর হলে কী হবে, দামের দিক থেকে মোটেও ‘ছোট’ নয় এই চকলেট বার।সাধারণত আমরা যে ধরনের চকলেট খেয়ে থাকি, এর স্বাদ তা থেকে একটু ভিন্ন। মুখে না দিলে সেটা নাকি বলে বোঝানো যাবে না !