আগামীকাল মুক্তি পাচ্ছে ‘দ্যা গুড ডাইনোসর’

আগামীকাল অর্থাৎ ২৫ নভেম্বর মুক্তি পাচ্ছে পিক্সার অ্যানিমেশন স্টুডিওয়ের ‘দ্যা গুড ডাইনোসর’। এই থ্রি-ডি অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্রটির প্রযোজনায় যৌথভাবে ছিল ওয়াল্ট ডিজনী পিকচার্স।

ClassTune

চলচ্চিত্রটির নির্মাণ ২০১৩ সালের আগস্ট পর্যন্ত বব পিটারসনের অধীনে থাকলেও, পরবর্তীতে অক্টোবর ২০১৪-তে পরিচালকের নতুন পদে যোগ দেন পিটার সন।

চলচ্চিত্রটির সংগীত পরিবেশনার দায়িত্বে ছিলেন মিশেল ড্যানা ও জেফ ড্যানা। আর ডিরেক্টর পিটার সন, বব পিটারসন, এরিক বেনসন, কেলসি ম্যান ছিলেন কাহিনীকার হিসেবে। চলচ্চিত্রের গল্পটি একটি মুহূর্তের যা ইতিহাস বদলাতে সক্ষম। গল্পটি উদারতার, গল্পটি মানবতা আর ডাইনোসরের বন্ধুত্বের। গল্পটি একটি নতুন অ্যাডভেঞ্চারের।

কাহিনীর শুরু অরলো নামের এক ছোট্ট ডাইনোসরকে নিয়ে, যে এক দুর্ঘটনায় তার বাবাকে হারায়। একদিন ঘুরে বেড়ানোর সময় পাথরে পা পিছলে গড়িয়ে পড়তে থাকে অরলো।

এরপরই সে নিজেকে আবিষ্কার করে নিজের পরিচিত পরিবেশ থেকে অনেক দূরে। নিজের ভূমিতে ফিরে যাওয়ার অভিযানের পথে হঠাৎই তার দেখা হয় এক ছোট্ট গুহামানবের সাথে।

সেই গুহামানবের নাম রাখে সে স্পট। আর এরপর থেকেই শুরু হয় ইতিহাস বদলে যাওয়ার কাহিনী। ইতিহাসের পাতায় যে ডাইনোসরকে হিংস্র-বর্বর বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে সেই ডাইনোসরের সাথেই মানুষের বন্ধুত্বের কাহিনীর রঙিন আঁচড় স্থান নেয় রূপালি পর্দায়।

অরলো ডাইনোসরের চরিত্রে গলা দিয়েছেন শিশু অভিনেতা রেয়মন্ড অশোয়া। আর স্পটের চরিত্রটিকে রূপদান করেছেন জ্যাক ব্রাইট।
তাছাড়া আরও বিভিন্ন চরিত্রে কন্ঠ দিয়েছেন জেফ্রি রাইট, স্টিভ য্যান, অ্যানা প্যাকুইন, ডিরেক্টর পিটার সনসহ আরো অনেকে।

গত ১০ নভেম্বর প্যারিসে অনুষ্ঠিত হয় ছবিটির প্রথম প্রিমিয়ার। আর যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলসে প্রিমিয়ার হয়ে গেল গত বুধবার। প্রিমিয়ারে উপস্থিত ছিলেন পিক্সারের প্রেসিডেন্ট জিম মরিস, ডিরেক্টর পিটারসন, জেফ্রি রাইট, রেয়মন্ড অশোয়া, জ্যাক ব্রাইট,জন ল্যাসেটার, ডেনিস রিম সহ প্রমুখ তারকারা।

‘এখানে কাজ করাটা ছিল একটা অ্যাডভেঞ্চারের মত’– এভাবেই প্রিমিয়ারে দ্যা গুড ডাইনোসর সম্পর্কে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করেন পিটারসন।

দ্যা গুড ডাইনোসরের মুক্তির মাধ্যমে এই প্রথমবারের মত পিক্সার অ্যানিমেশন একই বছরে দুটি ফিচার ফিল্ম মুক্তি দিতে যাচ্ছে। প্রথমটি অর্থাৎ ইনসাইড আউটমুক্তি পেয়ে গিয়েছে গত জুন মাসেই। মুক্তির সাথে সাথেই তা ছিনিয়ে এনেছে অবিস্মরণীয় সাফল্য।

তাই স্বাভাবিকভাবেই দ্যা গুড ডাইনোসরের প্রতি দর্শক-নির্মাতা সবারই প্রত্যাশার পাল্লাটা অনেক ভারি। ফলস্বরূপ মুক্তির আগেই আইএমডিবিতে ৭.৮ রেটিং নিয়ে চলচ্চিত্রটি আছে একটি ভাল অবস্থানে।

ধারণা করা হচ্ছে, ইনসাইড আউটের সাথে দ্যা গুড ডাইনোসরও মনোনয়ন পাবে একাডেমী অ্যাওয়ার্ড এর জন্য। এখন দেখবার পালা যে পিক্সারের এই দ্বিতীয় মুভি দ্যা গুড ডাইনোসর কেমন ঝড় তুলতে পারে বক্স অফিসে।