স্যামসাংয়ের ৫০ বছর পূর্তি

155
Samsung Logo

প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্ণ করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। গত ২৮ অক্টোবর স্যামসাংয়ের এই বর্ষপূর্তি পালন করা হয়। তারই অংশ হিসেবে বাংলাদেশেও স্যামসাং তাদের ক্রেতাদের জন্য একটি ভিন্নধর্মী ক্যাম্পেইনের আয়োজন করে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আয়োজিত এই ক্যাম্পেইনটি দুই সপ্তাহ ধরে চলে। ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে ক্রেতাদের স্যামসাংয়ের বিভিন্ন পণ্য (মোবাইল ফোন, টেলিভিশন, রেফ্রিজারেটর এবং ওয়াশিং মেশিন) ব্যবহারের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়। 

ClassTune

এই আয়োজনে প্রায় ৪০০জন ক্রেতার কাছ থেকে সাড়া পায় স্যামসাং বাংলাদেশ। এ সময় ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণকারীরা স্যামসাংয়ের বিভিন্ন পণ্য ব্যবহারের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন।

যেসব অংশগ্রহণকারী এই আয়োজনে সাড়া প্রদান করেছেন, তাঁদের মধ্য থেকে একজনকে (ভিন্ন ভিন্ন ক্যাটাগরি) বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। পরবর্তীতে স্যামসাং বাংলাদেশ বিজয়ীদের পুরস্কার গ্রহণে আমন্ত্রণ জানায়।

গত ২৮ অক্টোবর স্যামসাং বাংলাদেশর প্রধান কার্যালয়ে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান করা হয়। এ সময় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন স্যামসাং বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি ম্যানেজার স্যাংওয়ান ইয়ুন; জেনারেল ম্যানেজার বোমিন কিম; হেড অব মোবাইল মো. মূয়ীদুর রহমান এবং হেড অব কনজ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স শাহরিয়ার বিন লুৎফর।

পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে স্যামসাং বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি ম্যানেজার স্যাংওয়ান ইয়ুন বলেন, “ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণকারী বিজয়ীদের পুরস্কৃত করতে পেরে আমরা আনন্দিত। সেই সাথে স্যামসাংয়ের এই অদম্য অগ্রযাত্রায় সঙ্গী হওয়ার জন্য আমরা আমাদের সম্মানিত গ্রাহক এবং অংশীদারদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।”

বিজয়ীদের পুরস্কার হিসেবে একই ধরনের নতুন পণ্য দেওয়া হয়। উদাহরণস্বরুপ বলা যায়, দীর্ঘদিন ধরে যিনি স্যামসাংয়ের টিভি ব্যবহার করছেন ক্যাম্পেইনের পুরস্কার হিসেবে তিনি নতুন একটি টেলিভিশন পেয়েছেন ।

উল্লেখ্য, গত ২৮ অক্টোবর স্যামসাংয়ের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে প্রতিষ্ঠানটি তাদের ক্রেতাদের আমন্ত্রণ জানান। একজন ভাগ্যবান ক্রেতা বর্ণিল এই আয়োজনে অংশগ্রহণ করেন এবং জন্মদিনের পুরস্কার হিসেবে স্যামসাংয়ের পক্ষ তাঁকে একটি স্মার্টফোন প্রদান করা হয়।