আম্পায়ারদের কথোপকথন শোনা যাবে এখন !

চলছে ২০১৫ বিশ্বকাপ ক্রিকেট, আর এই জমকালো খেলার আসর নিয়ে ক্রিকেট ভক্তদের মাঝে উন্মাদনার শেষ নেই। যার যার প্রিয় দল নিয়ে তর্ক-বিতর্ক চলছেই। এর পাশাপাশি আমরা দিয়ে যাচ্ছি ক্রিকেট সম্পর্কীয় কিছু মজার সাধারণ তথ্য।

তোমরা হয়তোবা একটি জিনিস টিভির পর্দায় লক্ষ্য করেছো যখন মাঠের কোন আম্পায়ার ডিসিশন রিভিউ এর জন্য থার্ড আম্পায়ার নির্দেশ করেন তখন টিভির এক কোণে একটা লেখা থাকে ‘ Voice of TV Umpire ’। এর দ্বারা কি বুঝানো হয়েছে তা হয়তোবা তোমরা জানো। অর্থাৎ, টিভি আম্পায়ার কি কথা বলছে মাঠের আম্পায়ারের সাথে বা টিভি আম্পায়ার প্রযুক্তি ব্যবহার করে কিভাবে একটা ডিসিশন দিচ্ছে তা সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

দর্শকদের মনের ভিতরে একটা কৌতূহল থাকে যে মাঠের আম্পায়ার কি কথা বলে টিভি আম্পায়ারের সাথে ! ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমের কারণে টিভি আম্পায়ারের সাথে মাঠের আম্পায়ারের যোগাযোগ হয় অনেক বেশী। যোগাযোগটা বেশী হয় বলে দর্শকদের আগ্রহ বেড়ে গেছে আম্পায়ারদের কথোপকথন শুনার জন্য।

দর্শকদের আগ্রহ দেখে আইসিসি এই বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম ম্যাচ ( শ্রীলঙ্কা বনাম দক্ষিণ আফিকা) থেকে আম্পায়ারদের কথোপকথন উন্মুক্ত করে দিয়েছে। অর্থাৎ, বিশ্বকাপের ১৮ থেকে ২৯ মার্চ অনুষ্ঠিত ম্যাচগুলোতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় টেলিভিশন আম্পায়ারের সাথে মাঠের আম্পায়ারের যোগাযোগ সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

ব্যাপারটা এই বিশ্বকাপে প্রথম হলেও ক্রিকেটে প্রথম না। ২০১৪ সালের নভেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকার অস্ট্রেলিয়া সফরে প্রথম আম্পায়ারদের কথোপকথন সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছিলো।

এই ব্যাপারে দর্শকদের পর্যাপ্ত সাড়া পাওয়া গেলে পরবর্তীতে ক্রিকেট খেলায় আম্পায়ারদের কথোপকথন সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

এছাড়া, বিগ ব্যাশ বা আইপিএল এ ধারাভাষ্যকার মাঝে মাঝে খেলার মাঠের কোন ফিল্ডারের সাথে কথা বলে থাকে। এই ক্ষেত্রে, মাঠের ফিল্ডারের কানে একটি হেডফোন লাগানো থাকে যার মাধ্যমে ফিল্ডার ধারাভাষ্যকারের প্রশ্ন শুনে উত্তর দিয়ে থাকে।

দিন দিন প্রযুক্তি যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে একদিন হয়তো দেখা যাবে মাঠে কোন আম্পায়ার থাকবে না, বোলিং দল কোন আপিল করলে তা টিভি আম্পায়ার প্রযুক্তির মাধ্যমে দেখে তৎক্ষণাৎ ডিসিশন জানিয়ে দিবে !