কাগজের শক্তি

Book Friction
ছবি : সংগৃহীত

বিজ্ঞান নিয়ে অনেকের মনেই ভয়ভীতি থাকে। জটিল সব সূত্র, গাণিতিক ব্যাখ্যা আর কাঠখোট্টা সব শব্দ শুনলেই কেমন যেন ভয় ভয় লাগে। জটিল সব ঘটনাকে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা দিয়ে সহজভাবে তুলে ধরার কাজটিই করছে সায়েন্স রকস টিভি অনুষ্ঠানটি। প্রতি সপ্তাহে ২টি করে ৫২ সপ্তাহে মোট ১০৪টি মজার মজার সায়েন্স এক্সপেরিমেন্ট দেখানো হবে তোমাদের আর বলে দেয়া হবে সেটা কেন হলো, কিভাবে হলো। আজ এক ঝলক জেনে নেয়া যাক সায়েন্স রকস টিভি অনুষ্ঠানের চতুর্থ পর্বে দেখানো  কাগজের শক্তি পরীক্ষাটি।

আজকে তোমাদের মজার একটা পরীক্ষার কথা বলবো। তার আগে একটি প্রশ্ন করি তোমাকে যে, কাগজ দিয়ে কি একটা ভারী বস্তু টানা সম্ভব? অবাক লাগছে? আমি বলবো সম্ভব। আর সেটা সম্ভব হবে ঘর্ষণ শক্তির কারণে। কাগজের ঘর্ষণ শক্তিকে অবহেলা করলে চলবে না, কারণ আজ আমরা জানবো দুটি বই বা খাতা দিয়ে কিভাবে এমন একটি সংযোগ বানানো যায় !!

ClassTune

কি কি লাগবেঃ
কাগজের শক্তি পরীক্ষাটি করার জন্য আমাদের লাগবে দুটি বই/ খাতা/ ডাইরী ও স্কচ টেপ। মনে মনে ভাবছো যে মাত্র দুইটি উপাদান দিয়ে কিভাবে কাগজের শক্তি পরীক্ষা করবো। একটু অপেক্ষা করো।

কিভাবে করবোঃ
চল শুরু করা যাক পরীক্ষাটি। প্রথমে একটি খাতা নিয়ে তার নিচের মলাটটির উপর অন্য আরেকটি খাতার নিচের মলাটটি রাখি। এরপর প্রথম খাতাটির একটি পাতার উপর দ্বিতীয় খাতাটির আরেকটি পাতা রাখি। এভাবে, একটি একটি করে খাতাগুলোর সবগুলো পাতা একটির উপর আরেকটি করে রাখি। এই কাজটি করতে একটু সময় লাগতে পারে, কিন্তু ধৈর্য নিয়ে দুটি খাতার সবগুলো পাতা সুন্দর ভাবে একটির ভাজে আরেকটি রাখবো যেন এলোমেলো না হয়ে যায়। সবগুলো পাতা এভাবে সাজানো হয়ে গেলে খাতাগুলোর উপরের মলট দুটি একটির সাথে আরেকটি স্কচ টেপ দিয়ে আটকে দিবো। তৈরী হয়ে গেল আমাদের সেই কাঙ্ক্ষিত সংযোগ। এবার তোমার ছোট ভাই বা বোন বা বাসার যে কোন কাউকে ডাক দিয়ে বলো সংযোগের এক প্রান্ত ধরতে আর তুমি আরেক প্রান্ত ধরো। দেখো তো সংযোগটি দুই প্রান্ত থেকে টানাটানি করে বিচ্ছিন্ন করতে পারো কিনা? কি বিচ্ছিন্ন হচ্ছে? দেখেছো কাগজের কি শক্তি যার কারণে খাতা দুটোর সংযোগ স্থান বিচ্ছিন্ন হচ্ছে না বা খাতা দুটো আলাদা হচ্ছে না।

কেন হলোঃ
ঘর্ষণ শক্তির ব্যাপারে ধারণা রয়েছে কি? দুটি বস্তু একটি অপরটির বিপরীতে চলতে থাকলে একটি আরেকটির গতিকে বাঁধা সৃষ্টি করে আর এই বাঁধা দেবার শক্তিকে ঘর্ষণ বলে। বস্তু দুটির তল যত বেশি হবে ঘর্ষণ তত বেশি হবে। আমরা যখন খাতার দুই প্রান্ত ধরে টানছিলাম তখন খাতা দুটির ভিতর ঘর্ষণ শক্তি কাজ করছিলো। খাতা দুটির অনেকগুলো পাতা হওয়ায় ঘর্ষণ শক্তিও অনেক বেশি হয়েছিলো। এভাবেই কাগজের ঘর্ষণ শক্তিকে কাজে লাগিয়ে বড় কোন বস্তু টানা সম্ভব।