চ্যাম্পিয়নস লীগ কড়চা

১৯৫৫ সাল থেকে শুরু হওয়া উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ৬০তম আসরে আজ মাঠে নামবে ইউরোপিয়ান জায়ান্টগুলো। তবে তার আগে চ্যাম্পিয়নস লীগের কিছু রেকর্ডে চোখ বুলিয়ে নেয়া যাক।  

ණ সর্বোচ্চ ১০ বার শিরোপা জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ, তারপরেই আছে ৭ শিরোপা নিয়ে এসি মিলান , ৫ শিরোপা লিভারপুল ও বায়ার্ন মিউনিখের ,৪টি শিরোপা বার্সোলোনা ও আয়াক্সের শোকেসে ,৩টি শিরোপা ইন্টারন্যাজিওনালে বা ইন্টারমিলান ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ঘরে।

ClassTune

ණ টানা সবচেয়ে বেশিবার শিরোপা জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ । ১৯৫৬-৬০ সাল পর্যন্ত টানা ৫ বার শিরোপা জিতেছে এই ক্লাবটি। টানা ৩ বার শিরোপা জিতেছে বায়ার্ন মিউনিখ (১৯৭৪-৭৬), আয়াক্স (১৯৭১-৭৩)। তাছাড়া ব্যাক টু ব্যাক (টানা ২ বার) শিরোপা জিতেছে এসি মিলান (১৯৮৯-৯০), লিভারপুল (১৯৭৭-৭৮), ইন্টারন্যাজিওনালে বা ইন্টারমিলান (১৯৬৪-৬৫), বেনফিকা (১৯৬১-৬২) ও নটিংহাম ফরেস্ট (১৯৭৯-৮০)।

ණ বায়ার্ন মিউনিখ, বেনফিকা ও জুভেন্টাস সর্বোচ্চ ৫ বার রানার আপ হয়েছে । ৪ বার ফাইনালে উঠেও শিরোপা জিততে পারেনি এসি মিলান । বার্সোলোনা ও রিয়ালমাদ্রিদ ৩ বার রানার আপ হয়েছে ।

ණ একাধিকবার (২ বার) ফাইনালে খেলেও শিরোপা জিততে পারেনি স্টেইড ডি রেইম ,অ্যাথলেতিকো মাদ্রিদ ও ভ্যালেন্সিয়া।

ණ দুবার ফাইনাল খেলে দুবারই জিতেছে নটিংহাম ফরেস্ট ও এফসি পোর্তো ।

ණ একবার ফাইনাল খেলেই শিরোপা জিতেছে ৪টি দল ফেইনার্দ, আস্টন ভিলা, পিএসভি আইন্দোভেন ও রেড স্টার বেলগ্রেড ।

ණ  ১৩ বার ঘরোয়া আসরের চ্যাম্পিয়ন হয়েও এখনও পর্যন্ত উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শিরোপা ঘরে তুলতে পারেনি একবারের রানার আপ আর্সেনাল ।

ණ নটিংহাম ফরেস্ট ২ বারের ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়ন হলেও এখন খেলে ইংল্যান্ডের সেকেন্ড ডিভিশন ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপে ।