ডুবে যাওয়া জাহাজের মালিকানা দাবিতে বিতর্কে ৩ দেশ

1468

১৮শ শতাব্দীতে ক্যারিবিয়ান সাগরে ডুবে যাওয়া এক জাহাজ নিয়ে তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়েছে কলম্বিয়া, স্পেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে। প্রচুর পরিমাণ সোনা-রূপাসহ মূল্যবান সব সম্পদে পরিপূর্ণ ছিল এই জাহাজ।

ClassTune

‘সান হোজে’ নামের এই জাহাজটি সমুদ্র তল থেকে উদ্ধারকৃত জাহাজগুলোর মধ্যে সবচেয়ে মূল্যবান ধ্বংসাবশেষের আবিষ্কার বলেই ইঙ্গিত দিয়েছেন গবেষকরা। কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট হুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোসের মতে এখানে প্রায় ১ বিলিয়ন ইউএস ডলার সমমূল্যের সম্পদ রয়েছে।

প্রেসিডেন্ট বলেন, কলম্বিয়ার জাহাজ উদ্ধারকারী কর্মীরা কলম্বিয়ার জলসীমার মধ্যে সান হোসে জাহাজটির খোঁজ পেয়েছেন যেটি কিনা ৩০০ বছর আগে ডুবে গিয়েছিল।

কিন্তু ওয়াশিংটনের বেলভিউয়ের একটি স্যালভেজ কোম্পানি ‘সি সার্চ আর্মাডা’ বলছে, তারা আরও ৩০ বছর আগেই জাহাজটির সন্ধান পেয়েছে এবং এটি নিয়ে কলম্বিয়ার সরকারের সাথে তাদের তর্কবিতর্ক চলছে।

আবার স্পেন সরকার বলছে, আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে কোন জাহাজ ডোবার সময় সেটি যে দেশের পতাকা ধারণ করেছিল একমাত্র সে দেশেরই অধিকার আছে সেই জাহাজের উপর। সে হিসেবে সান হোসে জাহাজ এবং এর সকল সম্পদের মালিক স্পেন সরকার।

‘সান হোজে নামের এই জাহাজটি ১৭০৮ সালে দক্ষিণ আমেরিকার বিভিন্ন আদিবাসীদের কাছ থেকে লুঠ করা সম্পদ নিয়ে স্পেন যাচ্ছিল।

সেসময় ব্রিটিশ একটি যুদ্ধজাহাজের আক্রমণে কলম্বিয়ার উপকূল থেকে মাত্র ১৬ কিলোমিটার দূরে ডুবে যায় সোনা, রূপা আর রত্নে ভরপুর এই জাহাজটি। অনেকে বলছেন যা আন্দাজ করা হচ্ছে তার চেয়ে বেশি সম্পদ থাকতে পারে ডুবে যাওয়া এই জাহাজের অভ্যন্তরে।