নিজে নিজেই তৈরি হবে মোবাইল

self-assembling-phone-mit

সাড়া বিশ্বে মোবাইল ফোন এখন খুব পরিচিত আর সহজলভ্য একটি জিনিস। প্রতিনিয়ত এই মোবাইল ফোনে নতুন নতুন প্রযুক্তি আর ফিচার যোগ হচ্ছে যা জন্ম দিচ্ছে বিস্ময়ের। পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে কথা বলা, ভিডিও চ্যাট করা, তথ্য আদান-প্রদান বা ইন্টারনেট ব্যবহারসহ অনেক কাজেই এখন মোবাইল ফোন ব্যবহার করা হচ্ছে। কিন্তু তারপরও মোবাইল তৈরি ও সারানোর জন্য মানুষের উপরেই নির্ভর করতে হয়।

কিন্তু সে দিনও বোধহয় শেষ হয়ে আসছে। যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজির কয়েকজন গবেষক এমন একটি ফোন তৈরি করার চেষ্টা করছে যেটি কিনা নিজেই নিজেকে সংযুক্ত করতে পারবে।

ClassTune

তবে কোন যান্ত্রিক হাত এই কাজ করেনা বরং একটি জায়গায় ৬টি অংশ সংযুক্ত করা আছে যেগুলো বিভিন্ন গতিতে ঘুরে ঘুরে চুম্বকের সাহায্যে বিভিন্ন যন্ত্রাংশ জোড়া দিয়ে মোবাইল তৈরি করে। এই টুকরোগুলো একটি পাজলের মত করে নকশা করা হয়েছে যার ফলে একটি নির্দিষ্ট জায়গার যন্ত্রাংশ ঠিক সেই জায়গাতেই স্থাপিত হয়।

তবে এখন পর্যন্ত এই ফোন নিয়ে গবেষণা চলছে। মোবাইলটির পর্দা আকারে তুলনামূলক ছোট এবং এতে বাহ্যিক কি-বোর্ড রয়েছে। সংযুক্ত হবার সময় যাতে কোন যন্ত্রাংশ ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে জন্য টুকরোগুলো খুব আস্তে আস্তে ঘুরে। পুরো মোবাইলটি তৈরি হতে এক মিনিটেরও কম সময় লাগে।

প্রকল্পটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্থপতি ও বিজ্ঞান গবেষক স্কাইলার টিবিটস। ২০১১ সালে এমআইটিতে প্রতিষ্ঠিত সেলফ-অ্যাসেম্বলি ল্যাবের অধীনে কাজ করছেন তারা।