নৌকার খেলা

_1

বিজ্ঞান নিয়ে অনেকের মনেই ভয়ভীতি থাকে। জটিল সব সূত্র, গাণিতিক ব্যাখ্যা আর কাঠখোট্টা সব শব্দ শুনলেই কেমন যেন ভয় ভয় লাগে। জটিল সব ঘটনাকে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা দিয়ে সহজভাবে তুলে ধরার কাজটিই করছে সায়েন্স রকস টিভি অনুষ্ঠানটি। প্রতি সপ্তাহে ২টি করে ৫২ সপ্তাহে মোট ১০৪টি মজার মজার সায়েন্স এক্সপেরিমেন্ট দেখানো হবে তোমাদের আর বলে দেয়া হবে সেটা কেন হলো, কিভাবে হলো। আজ এক ঝলক জেনে নেয়া যাক সায়েন্স রকস টিভি অনুষ্ঠানের ত্রয়োদশ পর্বে দেখানো ‘নৌকার খেলা’ এক্সপেরিমেন্টটি।

ClassTune

 

ছোটবেলায় কাগজের নৌকা দিয়ে আমরা সবাই কমবেশি খেলেছি। কাগজ দিয়ে নৌকা তৈরি করে সেটা আমরা ভাসিয়ে দিতাম পানিতে। পানিতে এক-আধটু স্রোত থাকলে তা ভাসিয়ে নিয়ে এতো নৌকাটা। কিন্তু স্রোত না থাকলে আমাদেরই পানির ধাক্কা দেয়া লাগতো। কিন্তু আজকের এই এক্সপেরিমেন্টে আমরা দেখাবো স্রোত বা ধাক্কার সাহায্য ছাড়াই সাবানপানির সহায়তায় নৌকা কিভাবে এগিয়ে যায়।

 

যা যা লাগবেঃ

  • একটি বড় পানি ভর্তি পাত্র
  • শক্ত ও মোটা কাগজের তৈরি নৌকা
  • সাবান পানি

কিভাবে করবোঃ

আমাদের এই নৌকাটি  গতানুগতিক কাগজের নৌকার মত হবে না। পরীক্ষার সুবিধার্থে আমরা নৌকাটি এমনভাবে তৈরি করবো যেন এর সামনের দিক সূচালো থাকে এবং পেছন দিকে কিছুটা অংশ কাটা থাকে।

পানি ভর্তি পাত্রটি বড় হওয়া আবশ্যক যেন নৌকাটি স্বচ্ছন্দে চলাচল করতে পারে। এবার নৌকাটি পানিতে ছেড়ে দেই। তবে সাবধানে আস্তে তা করতে হবে যেন নৌকার উপর দিকটা ভিজে না যায় বা নৌকা ডুবে না যায়। এবার একটি ড্রপার দিয়ে নৌকার পেছন দিকের কাটা অংশটায় সাবান পানি ফোঁটায় ফোঁটায় ছাড়ি। দেখা যাবে বেশ দ্রুত ও স্বচ্ছন্দে ছোট্ট নৌকাটি সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

 

কেন হলোঃ

পানি একটি তরল পদার্থ যার কারণে পানির পৃষ্ঠটান রয়েছে। কিন্তু পানির এই পৃষ্ঠটানকে কমিয়ে দেয় সাবান। ফলে নৌকাটির পেছনে যখন সাবান পানির ফোঁটা ছাড়া হয় তখন সেটা পানির পৃষ্ঠটান কমিয়ে দেয় এবং একারণে পানির অণুগুলো বিভিন্ন দিকে ছুটাছুটি শুরু করে। কিন্তু পানির উপরিতলের অন্য অংশগুলোতে পানির পৃষ্ঠটান থেকেই যায়। পৃষ্ঠটানের এই ভিন্নতার কারণেই পানির উপরিভাগ নড়াচড়া করে যার ফলে নৌকাটি সামনের দিকে এগিয়ে যায়।