পরিসংখ্যানে বিশ্বকাপ: অস্ট্রেলিয়া বনাম আফগানিস্তান

· জয়ী দল: অস্ট্রেলিয়া ২৭৫ রানে আফগানিস্তানকে পরাজিত করেছে।

ClassTune

· দলীয় স্কোর: অস্ট্রেলিয়া ৫০ ওভারে ৪১৭/৬
                  আফগানিস্তান  ৩৭.৩ ওভারে ১৪২/১০

· ম্যান অব দি ম্যাচ: অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার (১৩৩ বলে ১৭৮ রান)

· ম্যাচের সেরা ব্যাটসম্যান: অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার (১৩৩ বলে ১৭৮ রান)

· ম্যাচের সেরা বোলার:  অস্ট্রেলিয়ার মিশেল জনসন (২২ রানে ৪ উইকেট)

· সবচেয়ে বেশি বাউন্ডারি(চার) মেরেছেন: অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার (১৯টি)

· সবচেয়ে বেশি ওভার বাউন্ডারি (ছক্কা) মেরেছেন: অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল(৭টি)

· ম্যাচের সেরা স্ট্রাইকরেট: অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (২২৫.৬৪)

· সর্বাধিক বল খেলেছেন: অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার (১৩৩ বল)

· সেরা পার্টনারশিপ: অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার-স্টিভেন স্মিথ (২য় উইকেট জুটিতে ২০৭ বলে ২৬০ রান)

· হাফসেঞ্চুরি সংখ্যা: অস্ট্রেলিয়া(২টি)করেছেন-  স্টিভেন স্মিথ ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল

· সেঞ্চুরি সংখ্যা: অস্ট্রেলিয়া (১টি) করেছেন – অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার

· দ্রুততম হাফসেঞ্চুরি: অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল(২১ বলে)

· দ্রুততম সেঞ্চুরি: অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার (৯২ বলে)

· মোট বাউন্ডারি ও ওভার বাউন্ডারি সংখ্যা: অস্ট্রেলিয়া (৩৬টি চার ও ১৪টি ছক্কা), আফগানিস্তান(৬টি চার ও ৩টি ছক্কা)

· সবচেয়ে বেশি রান দিয়েছেন: আফগানিস্তানের দৌলত জাদরান (১০ ওভারে ১০১ রান)

· সবচেয়ে বেশি ইকোনমি রেট: আফগানিস্তানের নওরোজ মঙ্গল (১৪.০)

· সর্বাধিক ক্যাচ: আফগানিস্তানের নাজিবুল্লাহ জাদরান ও অস্ট্রেলিয়ার মাইকেল ক্লার্ক (২টি করে)

· এক ওভারে বেশি রান দিয়েছেন: আফগানিস্তানের দৌলত জাদরান (২৩ রান)

· অতিরিক্ত রান: অস্ট্রেলিয়া (বাই ২, লেগবাই ৫, ওয়াইড ৭, নো বল ৩)
            আফগানিস্তান (বাই ৪, লেগবাই ৫, ওয়াইড ১০, নো বল ১)

অন্যরকম কিছু রেকর্ড ও ঘটনা:
আফগানিস্তানকে বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ ২৭৫ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। এর আগে ওয়ানডের সেরা এই টুর্নামেন্টে রানের দিক দিয়ে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয় ছিল ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার। ২০০৭ সালে ভারত বারমুডাকে এবং এবারের আসরে দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ২৫৭ রানে হারায়।

আট বছর আগে ২০০৭ ভারতের গড়া বিশ্বকাপে দলীয় সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড ভেঙেছে অস্ট্রেলিয়া ৬ উইকেটে ৪১৭ রান করে। ২০০৭ বিশ্বকাপে বারমুডার বিপক্ষে ৪১৩ করেছিল ভারত। এবারের বিশ্বকাপেই সেই রেকর্ডের দোরগোড়ায় চলে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৪১১ রানেই থেমে যায় প্রোটিয়াদের ইনিংস।

এবারের বিশ্বকাপে রানের ফুলঝুরি ছোটাচ্ছেন ব্যাটসম্যানরা। যার প্রমাণ ২৬ নম্বর ম্যাচে এসেই তিন বার ৪০০ এর বেশী রানের স্কোর দেখছে ক্রিকেট বিশ্ব। অথচ এর আগের ৯টি বিশ্বকাপে এটি হয়েছে মাত্র একবার।

স্মিথ ও ওয়ার্নারের দ্বিতীয় উইকেটে ৩৪.৩ ওভারে ২৬০ রানের পার্টনারশিপ অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে যেকোনো উইকেটেই সর্বোচ্চ রানের ওয়ানডে জুটি।

মাত্র ২১ বলে ৫০ রান করে যৌথভাবে ৩য় দ্রুততম হাফসেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছেন অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের ১৭৮ রানের ইনিংসটি বিশ্বকাপে অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ।