পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়ংকর প্রাণী কোনটি?

mosquito_trasmisor_de_dengue_0_0
ছবি : সংগৃহীত

পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়ংকর প্রাণী কোনটি? বাঘ? হাঙর? নাকি অ্যানাকোন্ডা? অনেকের মতে সবচেয়ে ভয়ংকর প্রাণী মানুষ। কিন্তু বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি বিল গেটসের ব্লগ বলছে অন্য কথা। এই ব্লগে সম্প্রতি প্রকাশিত এক প্রতিবেদন অনুযায়ী মানুষ হত্যার পরিপ্রেক্ষিতে পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়ংকর প্রাণী হচ্ছে মশা।

 

হ্যাঁ, মশা! ছোট্ট এই পোকাটিই প্রতি বছর বিশ্বে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী। বিরক্তিকর এই প্রাণী মানুষের রক্ত চুষে খায় এবং শরীরে জীবাণু ছড়িয়ে দেয় যার ফলে মানুষ অসুস্থ হয়ে মৃত্যুবরণ করে। তবে শুধু মানুষই নয় গবাদি পশুসহ আরও অসংখ্য প্রাণী মারা যায় মশার কামড়ে।

বিল গেটস তার ব্লগে বলেন, ‘যখন মানুষ মারার ব্যাপারটা আসে তখন অন্য কোন প্রাণী মশার ধারেকাছেও আসতে পারে না’।

প্রতিবছর পৃথিবীজুড়ে ৭ লাখ ২৫ হাজার মানুষ মারা যায় মশার কামড়ে যেখানে মানুষের হাতে মানুষের মৃত্যু ঘটে ৪ লাখ ৭৫ হাজারের মত। সাপের কামড়ে মারা যায় ৫০ হাজার মানুষ আর হাঙরের আক্রমনে মৃত্যুবরণ করে মাত্র ১০ জন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরীপ অনুযায়ী, মশার কামড়ে মৃত মানুষের মধ্যে অর্ধেক মানুষই মারা যায় ম্যালেরিয়ার। এদের বেশীরভাগই আফ্রিকার সাহারা অঞ্চলের আশেপাশের বাসিন্দা। যদিও ২০০০ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে ম্যালেরিয়ায় মানুষের মৃত্যুর সংখ্যা ৩৭ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। একই সাথে মশার কামড়ে সৃষ্ট ডেঙ্গুজ্বরের কারণে এশিয়া এবং ল্যাটিন আমেরিকার অনেক মানুষ প্রতিবছর অসুস্থ হয় ও মারা যায়।

সেই সাথে সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়েছে মশা দ্বারা সংক্রমিত আরেক ভয়াবহ ভাইরাস জিকা ভাইরাস যার কারণে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সারা বিশ্বে জরুরী স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করতে বাধ্য হয়েছে। এই ভাইরাসের দ্বারা কোন গর্ভবতী নারী আক্রান্ত হলে জন্ম নেয়া বাচ্চার মাথা ছোট হয় এবং মস্তিষ্কজনিত রোগে আক্রান্ত হয়।

ডেঙ্গু এবং জিকা ছড়ায় এডিস মশা এবং ম্যালেরিয়া ছড়ায় অ্যানোফিলিস মশা।