বেড়েছে মানুষের গড় আয়ু

পৃথিবীর ১৮৮টি দেশের উপর জরীপ চালিয়ে দেখা গিয়েছে ১৯৯০ সালের পর থেকে পৃথিবীর মানুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু ৬ বছর বৃদ্ধি পেয়েছে। আর সবচাইতে বেশিদিন বাঁচে জাপানের মানুষ।

ClassTune

‘দ্য ল্যানসেট’ নামের একটি ইংরেজি স্বাস্থ্য পত্রিকায় বৃহস্পতিবার প্রকাশিত একটি গবেষণা প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, বিশ্বজুড়ে মানুষের আয়ুষ্কাল বাড়ছে, যদিও অসুস্থতা এবং পঙ্গুত্বের সাথে তাদের যুদ্ধ করার পরিমাণও বৃদ্ধি পেয়েছে।

ইউনিভার্সিটি অফ ওয়াশিংটনের অধ্যাপক থিও ভস বলেন, ‘এইডস এবং ম্যালেরিয়ার মত সংক্রামক মরণব্যাধিগুলো এতদিন মানুষের মৃত্যুর একটা বড় কারণ ছিল। কিন্তু এগুলো মোকাবেলায় বিশ্বব্যাপী বড় বড় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে আর সেগুলোর সুফলই পাচ্ছে মানুষ। তবে এক্ষেত্রে আরও কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া খুবই জরুরী’।

১৯৯০ সালে যেখানে মানুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু ছিল ৬৫.৩ বছর, ২০১৩ সালে সেটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭১.৫ বছর অর্থাৎ ২৩ বছরে গড় আয়ু বেড়েছে ৬.২ বছর। পুরুষদের আয়ু ৬৮.৮ বছর এবং নারীদের ৭৪.৩ বছর।

তবে দেশভেদে এই পরিবর্তন বিভিন্নরকম। বেলিজ, বোতসোয়ানা এবং সিরিয়ায় পরিবর্তন খুব একটা দেখা যায়নি। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকা, পেরাগুয়ে এবং বেলারুশের মত কিছু দেশে অবস্থার অবনতি ঘটেছে।

অন্যদিকে নিকারাগুয়া এবং কম্বোডিয়াতে আয়ুষ্কাল ১৪ বছর বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া সিঙ্গাপুর, এন্ডোরা, আইসল্যান্ড, সাইপ্রাস, ইজরাইল, ফ্রান্স, ইটালি, দক্ষিণ কোরিয়া এবং কানাডাতেও প্রত্যাশিত গড় আয়ুষ্কাল উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে।

জরীপে দেখা গেছে, আফ্রিকার দক্ষিণে অবস্থিত লেসোথো নামক দেশের প্রত্যাশিত গড় আয়ু সবচেয়ে কম, মাত্র ৪২ বছর। আর সবচেয়ে বেশি জাপানে, ৮৩ বছর। জাপানের মানুষ গড়ে ৭৩ বছর বয়স পর্যন্ত সুস্থভাবে বেঁচে থাকে।