মায়ানমারে সাদা হাতি

মায়ানমারের বন অধিদপ্তর সম্প্রতি একটি দুষ্প্রাপ্য সাদা হাতি আটক করেছে। দেশটির পশ্চিমে আয়েইয়ারওয়াদি অঞ্চলের জঙ্গল থেকে হাতিটি ধরা হয়েছে।

ClassTune

সেখানকার বন কর্মকর্তা টুন টুনও জানিয়ছেন, ‘এটি ৭ বছর বয়সী একটি মাদি হাতি। ৬ সপ্তাহ আগে আমরা এটাকে শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছিলাম। এ নিয়ে আমাদের কাছে এই প্রজাতির মোট ৯টি হাতি রয়েছে।

হাতিটি ১.৯ মিটার লম্বা। এটাকে ধরার সময় আমরা খুব সতর্ক ছিলাম। আমরা চাইনি হাতিটি বা আমাদের কেউ একে ধরার সময় আহত হোক’।

উল্লেখ্য সাদা হাতিকে মায়ানমার, থাইল্যান্ড, লাওস এবং আরও কয়েকটি এশিয়ান দেশে পবিত্র মনে করা হয় এবং শ্রদ্ধার চোখে দেখা হয়।

একসময় এইরকম হাতি সাধারণত রাজা-বাদশারা পুষতেন তাদের রাজকীয়তা দেখানোর জন্য। এখনও অনেক মানুষ মনে করে এই হাতি তাদের দেশের জন্য সৌভাগ্য বয়ে আনবে।

১৬শ শতকে মায়ানমার এবং থাইল্যান্ডের (যখন দেশ দুটি বার্মা এবং সিয়াম নামে পরিচিত ছিল) মধ্যে ৪টি সাদা হাতির মালিকানা নিয়ে যুদ্ধ পর্যন্ত হয়েছিলো।

এতদিন পর্যন্ত মায়ানমারের বন অধিদপ্তরের কাছে ৮টি সাদা হাতি ছিল যেগুলোর বেশিরভাগই ধরা হয়েছিলো আয়েইয়ারওয়াদি অঞ্চল থেকে।

৫টি হাতিকে রাখা হয়েছে রাজধানী নেপিদাও’এর চিড়িয়াখানায়, বাকিগুলো আছে ইয়াঙ্গুনের চিড়িয়াখানাতে। তবে সর্বশেষ ধৃত হাতিটি কোথায় রাখা হবে তা এখনও ঠিক করা হয়নি।

World Wildlife Fund-এর হিসাব অনুযায়ী এখন পর্যন্ত ২৫,৬০০ থেকে ৩২,৭৫০টি এশিয়ান হাতি অবশিষ্ট আছে। কিন্তু ক্রমাগত শিকারের কারণে এই সংখ্যা দিন দিন কমেছে।

ইতোধ্যেই ভারত, ভিয়েতনাম এবং মায়ানমারে হাতি শিকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।