যুক্তরাষ্ট্রে শুরু হয়েছে বাইসন হত্যা!

2166
Byson Killing in USA
ছবি: সংগৃহীত

গত সোমবার আমেরিকার ইয়েলোস্টোন ন্যাশনাল পার্কের কর্মকর্তারা এবং আরাে বেশ কয়েকটি এজেন্সির সদস্যরা প্রায় ৬০০-৯০০ বাইসন ঘিরে ফেলে যেগুলোকে মেরে ফেলাই হচ্ছে মূল উদ্দেশ্য। প্রতিবছরই এই পার্কে বার্ষিকভাবে একটা নির্দিষ্টসংখ্যক বাইসন শিকার করা হয় অথবা ফাঁদে ফেলে ধরে পরবর্তীতে হত্যা করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের সরকার এ বছর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ৯০০ বাইসন হত্যা করার যেন এদের সংখ্যা বেড়ে গিয়ে ইয়েলোস্টোন পার্ক থেকে পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়তে না পারে। এ বছর বাইসনের সংখ্যা ৫ হাজার থেকে কমিয়ে ৩ হাজার করার চিন্তা আছে সরকারের।

ইয়েলোস্টোন পার্কের পার্শ্ববর্তী মন্টানা অঙ্গরাজ্যের খামার মালিকরা বলছেন, বাইসন থেকে ব্রুসেলোসিস নামক একটি রোগ ছড়িয়ে পড়ে তাদের গবাদি পশুদের মাঝে। এ কারণেই বাইসনের সংখ্যা কমিয়ে রাখা হয়। তবে এখন পর্যন্ত এর কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

১৯৯৫ সালে মন্টানায় বাইসন ছড়িয়ে পড়লে রাজ্যটি পার্কের বিরুদ্ধে মামলা করে। এরপর থেকেই প্রতিবছর কয়েকশ অতিরিক্ত বাইসন হত্যা করা হয়।

২০০৮ সালে সর্বোচ্চ সংখ্যক ১ হাজার ৭২৬টি বাইসন হত্যা করা হয়। এসব বাইসনের মাংস ও চামড়া আমেরিকার আদিবাসী গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে বিতরণ করে দেয়া হয়।

১৯০২ সালে বাইসনের সংখ্যা কমে মাত্র ২৩টিতে চলে এসেছিল। সেখান থেকে বিভিন্ন পদক্ষেপের মাধ্যমে এই প্রাণীর সংখ্যা বাড়ানো হতে থাকে।

কিন্তু হত্যা না করে বাইসন রপ্তানি করার কথা বলা হলে এক পার্ক কর্মকর্তা জানান, রাজ্যের আইন অনুসারে শুধুমাত্র জবাই করার উদ্দেশ্য ছাড়া অন্য কোথাও বাইসন পাঠানো যাবে না।

তবে তিনি জানান, তারা বাইসনদের রোগমুক্ত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে যেন এদের আর হত্যা করতে না হয়।