ইংল্যান্ডে দুষ্প্রাপ্য সমাধিফলক

ইংল্যান্ডের একটি রোমান সমাধিক্ষেত্রে ১ হাজার ৮০০ বছরের পুরনো একটি সমাধিফলক পাওয়া গিয়েছে। সমাধিফলকের উপর খোদাই করা লেখা দেখে জানা গিয়েছে, সমাধিটি বডিকা নামের ২৭ বছর বয়সী একজন নারীর।

কটসওল্ড আরকিওলজির নেইল হলব্রুক বলেন, ‘এটি অবিশ্বাস্যরকমের দুষ্প্রাপ্য’। গ্লুসেসটারশায়র শহরে অবস্থিত প্রাচীন সিরেনসেসটার শহরের প্রাচীরের বাইরের অবস্থিত এই রোমান সমাধিক্ষেত্র।

ClassTune

গত দু’মাস ধরে এখানে খননকাজ চালাচ্ছেন হলব্রুক ও তার সহকর্মীরা। তারা ৫৫টি কবর নিয়ে কাজ করেন। এদের মধ্যে কয়েকটিতে কাঠের কফিন ও তামার ব্রেসলেট ছিল। কিন্তু শুধুমাত্র একটি কবর পাওয়া গিয়েছে যেটি একটি পাথরের স্ল্যাব দিয়ে ঢাকা ছিল।

খননকারীরা স্ল্যাবটি উঠিয়ে আবিষ্কার করেন যে সেটি একটি সমাধিফলক। সিরেনসেসটারে পাওয়া রোমান সমাধিফলকের মধ্যে এটি নবম। সমগ্র ইংল্যান্ডে এরকম মোট ৩০০ সমাধিফলক পাওয়া গিয়েছে।

কবরটি দ্বিতীয় শতকের, সেসময় সিরেনসেসটার ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর ছিল (লন্ডনের পরেই)। বডিকার সমাধিফলকটি বেশ দামি কারুকাজ করা ছিল। এ থেকে ধারণা করা হচ্ছে, তিনি বা তার স্বামী অনেক ধনী ছিলেন।

সমাধিফলকের উপরে ল্যাটিন হরফে লেখা আছে, “D.M. BODICACIA CONIUNX VIXIT ANNO S XXVII” যার অর্থ হচ্ছে, “এই মৃতদেহের আত্মা, বডিকা, একজন বিশ্বস্ত স্ত্রী, ২৭ বছর বেঁচে ছিলেন”।

কিন্তু ফলকের উপর খোদাই করা এ লেখা নিয়ে প্রত্নতত্ত্ববিদেরা মাথা চুলকাচ্ছেন। হলব্রুক বলেন, ‘লেখাটি খুবই অনভিজ্ঞ হাতের লেখা, সে সম্ভবত খুব একটা বেশি শিক্ষিত ছিল না’।

ফলকের লেখায় কিছু অক্ষর অনুপস্থিত ছিল। এদিকে বডিকা (যার অর্থ হচ্ছে বিজয়) নামটি বডিকাসিয়া কি না টা নিয়েও তর্ক চলছে। ধারণা করা হচ্ছে, বডিকা তার মৃত্যুর পূর্বেই এই লেখাগুলো নির্ধারণ করে গিয়েছিলেন, কিন্তু তার মৃত্যুর পর সেগুলো যথাযথভাবে করা হয়নি।

হলব্রুক জানান, ‘মাত্র ২৪ ঘণ্টা পাথরটি সমাধির বাইরে ছিল। এর মধ্যেই এটা আমাদের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ আর বিতর্কের জন্ম দেয়’।