ওয়াটারপ্রুফ দিয়াশলাই

waterproof-match

ওয়াটারপ্রুফ দিয়াশলাই

কাজ করার সময় অনেক সময় দিয়াশলাই এর কাঠি হাত থেকে ছুটে যায় বা পড়ে গিয়ে ভিজে যায়। অনেক সময় দেখা যায় পুরো ম্যাচ বক্সটিই পানিতে পড়ে যায়…

ClassTune

আজকে আমরা এমন পদ্ধতি শিখবো যাতে ম্যাচবক্স ভিজে গেলেও কাঠিগুলো ব্যবহার করা যায়ঃ

যা যা লাগবেঃ

ম্যাচের কাঠি ১০/১২ টি,

১টি বড় মোমবাতি

যা করতে হবেঃ

প্রথমে মোমটিকেকে উচ্চ তাপমাত্রায় (প্রায় ৪৫ ডিগ্রী তাপমাত্রা) গলিয়ে তরলে রুপান্তর করে নেই।

এরপর ম্যাচবক্স থেকে কাঠিগুলো বের করে তরল মোমের উপর ছেড়ে দেই। ৫-৬ মিনিট ঐ তরল মোমে কাঠিগুলো ডুবিয়ে রেখে উঠিয়ে ভালো করে শুকিয়ে নিই।

ব্যাস! তৈরী হয়ে গেলো আমাদের ওয়াটারপ্রুফ দিয়াশলাই।

এবারে কাঠিগুলোকে পানিতে ভিজিয়ে পরীক্ষা করে দেখা যেতে পারে। সাধারন দিয়াশলায়ের কাঠি পানিতে ভিজিয়ে উঠালে তা দিয়ে আগুন জ্বলানো যাবে না। কিন্তু তরল মোমে ভিজানো এই কাঠিগুলো ঐরকম হবে না। পানিতে ভিজানোর পর ও কাঠিগুলো  স্যাঁতসেঁতে দেখালেও তা দিয়ে আগুন জ্বলবে।

কারনঃ

মোম হচ্ছে এক ধরনের পানিগ্রাহী পদার্থ। সহজ ভাষায় মোম পানিতে অদ্রাব্য। তাই কাঠির সাথে মোম গুলো লেগে থাকে, যার কারণে মোমের আবরন ভেদ করে পানি ভিতরে ঢুকতে পারে না, ফলে কাঠিগুলো জ্বলনের উপযোগী থেকে যায়।আরেকটি প্রধান কারণ হচ্ছে মোম নন-পোলার পদার্থ। তাই নন-পোলার পদার্থের অণুগুলো শুধুমাত্র নন-পোলার পদার্থেই দ্রবীভূত হবে। পানির মধ্যে পোলার অণু উপস্থিত থাকায় মোম পানিতে দ্রবীভূত হয় না।