কড়া নাড়ছে বিশ্বকাপ

2015-cricket-world-cup-logo

অস্ট্রেলিয়া- নিউ জিল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য একাদশ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের মহারণ শুরু হতে আর মাত্র ৯৪ দিন বাকি। আর বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি গত সোমবারের বৈঠকে এই বিশ্বকাপ ছাড়াও আরও কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে-

 

·         ২০১১ বিশ্বকাপের পুরস্কারের চেয়ে এবারের পুরস্কারের অর্থ প্রায় ২০ শতাংশ বাড়ছে।

ClassTune

 

 

২০১৫

২০১১

চ্যাম্পিয়ন দল

৩৭ লাখ ৫০ হাজার ডলার

৩২ লাখ ৫০ হাজার ডলার,

রানার্স আপ

১৭ লাখ ৫০ হাজার ডলার

১৫ লাখ ডলার

সেমিফাইনালে পরাজিত দল(২টি)

৬ লাখ ডলার

৫ লাখ ডলার

কোয়ার্টার ফাইনালে পরাজিত দল(৪টি)

৩ লাখ ডলার

২.৫ লাখ ডলার

সুপার এইট পর্বে ৫ম-৮ম স্থানপ্রাপ্ত দল

 

 

গ্রুপপর্বে ম্যাচজয়ী দল

৪৫ হাজার ডলার x ৪২ ম্যাচ

৩০ হাজার ডলার x ৪২ ম্যাচ

গ্রুপ পর্বে বাদ পড়া দল

৩৫ হাজার ডলার x ৬টি দল

 

মোট

১ কোটি মার্কিন ডলার

৮০ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার

 

·         প্রথমবারের মত বিশ্বকাপের সবগুলো (৪৯টি) ম্যাচেই ডিআরএস (DRS)* প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে।

·         বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচগুলো ছাড়া অন্যান্য সকল ‘নক-আউট’ ম্যাচগুলোতে রিজার্ভ ডে* থাকবে।

·         কোন ম্যাচ টাই হলে সুপার ওভারের* কোন ব্যবস্থা থাকছে না এবার। কোয়ার্টার-ফাইনাল ও সেমি-ফাইনালে কোনো ম্যাচ টাই হলে গ্রুপ পর্বে এগিয়ে থাকা দলটি পরের পর্বে যাবে।  ফাইনাল ম্যাচ টাই কিংবা পরিত্যক্ত হলে দুই দলকে যৌথ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হবে।

·         দুর্নীতির দায়ে নিষিদ্ধ ক্রিকেটাররা নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার আগেই কিছু শর্ত সাপেক্ষে ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন।

এছাড়া চ্যাম্পিয়নস ট্রফি, পরবর্তী আইসিসি সভাপতি নির্ধারণ, প্রমীলা ক্রিকেট, অবৈধ বোলিং অ্যাকশন , ওভার রেট নিয়েও এই বৈঠকে আলোচনা করা হয়।  

* ডিআরএস (DRS) হল Decision Review System এর সংক্ষিপ্ত রূপ; মানে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ক্রিকেটারদের আপীল করার সুযোগ। এ পদ্ধতিতে মূলত হক আই, আলট্রা মোশন, হটস্পট, স্নিকোমিটার ও সুপার জুম প্রযুক্তির মাধ্যমে রিভিউ করা হয়।

* আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া গুরুত্বপূর্ণ ওয়ানডে ম্যাচ গুলো অনেক সময় বৃষ্টি অথবা অন্য কোন কারণে বাধাগ্রস্ত হলে পরের দিন আবার খেলার জন্য পরের দিন আবার খেলার সুযোগকে রিজার্ভ ডে বলা হয়।

* নির্ধারিত ওভারের খেলায় যদি ম্যাচ টাই হয় তবে ফলাফল নির্ধারণের জন্য প্রতি দল এক ওভার করে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পায় একেই সুপার ওভার বলে। এটি সাধারণত টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটের খেলায় বেশি দেখা যায়।

 

সূত্র: আইসিসি ওয়েবসাইট