দক্ষিণ কোরিয়াতেও প্রাণঘাতী মার্স

দক্ষিণ কোরিয়ায় শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত মার্স (MERS) রোগে মারা গেছেন ২ জন। মধ্যপ্রাচ্যের বাইরে এইটাই সবচেয়ে বড় এই রোগের সংক্রমণ। দেশটিতে মোট ৬৮২ জনের মধ্যে এই ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছে। এদেরকে সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানে রাখা হয়েছে।

MERS এর সম্পূর্ণ রূপ হচ্ছে Middle East Respiratory Syndrome। দক্ষিণ কোরিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানায়েছেন, ইতোমধ্যেই তার দেশে ২ জন এই রোগে মারা গিয়েছেন। গত দুই সপ্তাহে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২৫ জন।

৫৮ বছর বয়সী এক নারী এই রোগে প্রথম মারা যান। তারপরেই ৭১ বছরের এক বৃদ্ধ মারা যান এই রোগাক্রান্ত হয়ে।

মার্স একটি প্রাণঘাতী রোগ। তবে Severe Acute Respiratory Syndrome (SARS) এর তুলনায় এটি কম সংক্রামক। ২০০৩ সালে মার্স এশিয়াতে ছড়িয়ে পড়ে যা একশোরও বেশি প্রাণ কেড়ে নেয়।

সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের পর দক্ষিণ কোরিয়াতেই সবচেয়ে বেশি মানুষ মার্স রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। ২০১২ সাল থেকে এখন পর্যন্ত সৌদি আরবে এই রোগে প্রায় ৪০০ মানুষ মারা গিয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট পার্ক গিয়ুন-হাই সেদেশের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের অপর্যাপ্ত পদক্ষেপের কড়া সমালোচনা করেছেন।

এশিয়াতে এই রোগ ছড়িয়ে পড়ে ৪৪ বছর বয়সী এক ভদ্রলোকের মাধ্যমে যে কিছুদিন আগেই সৌদি আরব ভ্রমণ করে এসেছিল।

উল্লেখ্য এখন পর্যন্ত এ রোগের কোন ওষুধ বা টিকা আবিষ্কৃত হয়নি।