ফলের তালিকায় আর নাও থাকতে পারে কলা!

1776

বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে কলা। ‘পানামা ডিজিস’ নামের ক্ষতিকর এক ধরণের ছত্রাকের আক্রমণে এই জনপ্রিয় ও পুষ্টিকর ফলটি পৃথিবী থেকে হারিয়ে যেতে পারে। এমনই একটি গবেষণা প্রকাশ করেছে নেদারল্যান্ডের ওয়াগেনিগেন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক।

ClassTune

ষাটের দশকের দিকে এই পানামা ডিজিসের কারণে ‘গ্রস মিশেল’ নামের কলার একটি জনপ্রিয় প্রজাতি প্রায় বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছিল। আর এবার টিআর৪ ছত্রাকের আক্রমণে ‘ক্যাভেন্ডিস’ নামের আরেকটি প্রজাতি ধ্বংসের মুখে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই রোগ ল্যাটিন আমেরিকায় পৌঁছাতে খুব বেশি দেরি হবে না যেখানে পৃথিবীর ৮০ শতাংশ এই জাতের কলা উৎপাদিত হয়।

১৯৯৪ সালে এই ছত্রাক প্রথম সনাক্ত করা হয়। টিআর৪ ছত্রাক ৩০ বছর পর্যন্ত মাটিতে নিষ্ক্রিয় অবস্থায় থাকতে পারে। যখন এটি আক্রমণ করে তখন কলার পানি পরিবহন প্রক্রিয়া ধ্বংস করে দেয়। ফলে পানিশূন্যতার কারণে কলা নিস্তেজ হয়ে পড়ে এবং মারা যায়।

প্রথমে তাইওয়ানে এই ছত্রাক আক্রমণ করলেও পরে পূর্ব এবং দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতেও এটি ছড়িয়ে পড়ে। ২০১৩ সালের পর থেকে পাকিস্তান, জর্ডান, লেবানন, মোজাম্বিক, ওমান, অস্ট্রেলিয়াসহ পৃথিবীর বিভিন্ন অংশে এই ছত্রাক ছড়িয়ে পড়েছে।

কিন্তু এখন পর্যন্ত এই ছত্রাক নির্মূলে সফল কোন প্রতিষেধক বা কীটনাশক আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এখনো পর্যন্ত এ সমস্যা থেকে উত্তরণের পথ খুঁজে পাওয়া যায়নি। যদি সত্যিই ক্যাভেন্ডিস জাতের কলা বাঁচানো না যায় তাহলে হয়তো আমাদের নতুন কোন জাতের কলার দিকে মনোযোগ দিতে হবে।