শীতের পিঠা

2781
Pitha

বেশ জাঁকিয়ে শীত পড়েছে। আর শীত মানেই নানা রকম পিঠাপুলির উৎসব। এবার তাই চ্যাম্পস টোয়েন্টিওয়ান ডটকমের পাঠকদের জন্য শীতের চারটি পিঠার রেসিপি দিয়েছেন রন্ধনশিল্পী লবী রহমান

১. বাদাম ভাপা

ClassTune

উপকরণ: সেদ্ধ চালের গুড়া প্রয়োজনমতো, লবণ গুড়ো ২ চা চামচ, চিনা বাদাম মোটা কুচি আধা কাপ, কনডেন্সড মিল্ক আধা কৌটা।

প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে সেদ্ধ চালের গুড়া মিহি চালনিতে চেলে নিন। ভালো করে গুড়িয়ে লবণ মেশান। এমন পরিমাণ পানি অল্প অল্প করে ছিটিয়ে মেশান যেনো চালের গুড়া ভেজা মনে হয় অথচ দলা না বাঁধে। পানি মেশানোর পরে গুড়া আবার চেলে নিন।

এবার ভাপা পিঠার পাত্রে পানি ফুটান। পিঠার পাত্রের পরিবর্তে অন্য ছোট মুখের হাঁড়িতে ছিদ্র করা মাটির ঢাকনা আটা দিয়ে এটে দিয়েও ভাপা পিঠার পাত্র বানাতে পারেন। পিঠার জন্য দুটি ছোট বাটি নিন।

বাটিতে গুড়া অল্প অল্প করে ছড়িয়ে দিন। মাঝে দুই চা-চামচ কনডেন্সড মিল্ক দিন এবং উপরে চিনা বাদাম ছিটিয়ে দিন। এরপর আবার গুড়া ছিটিয়ে দিয়ে বাটি ভওে গেলে হাত দিয়ে গুড়া সমান করে দিন। চাপবেন না। পাতলা ভেজা কাপড়ের টুকরো দিয়ে পিঠা ঢেকে দিন।

বাটির নিচের কাপড় মুঠো করে ধরে বাটি উল্টে ফুটন্ত পানির পাত্রের মুখে বসান। এবার সাবধানে বাটি তুলে ফেলুন। পিঠা কাপড় দিয়ে ঢেকে তার ওপরে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিন। দু’মিনিট পরে কাপড়সহ পিঠা তুলে ফেলুন। এভাবে সবগুলো পিঠা তৈরি করুন।

২. পাটি সাপটা

উপকরণ: দেড় কাপ ময়দা, ২টা ডিম, আধা টিন কনডেন্সড মিল্ক, লবণ পরিমাণ মত, ১ কাপ পানি, ২ টেবিল চামচ চিনি, দেড় কাপ নারকেল কুরানো কিংবা ১ কাপ দুধের ক্ষীর।

প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে ডিম ফেটে কনডেন্সড মিল্কের সঙ্গে ভালো করে মেশান। পানি মিশিয়ে ময়দা দিয়ে গোলা করুন। এরপর চিনি ও লবণ মেশান। ছোট ফ্রাইং প্যান গরম করে চার ভাগের এক কাপ গোলা দিন।

প্যান ঘুরিয়ে গোলা চারদিকে প্যানের সমান করে ছড়িয়ে দিন। পিঠা প্যানের কিনার ছেড়ে আসলে তুলে নিন। সব পিঠা হয়ে গেলে ক্ষীর বা নারকেল পুর দিয়ে মুড়ে চেপে দিন।

৩. নকশী পিঠা

উপকরণ : সুজি ১ কাপ, কোঁড়ানো নারকেল ৪ টেবিল চামচ, চালের গুঁড়া আধা কাপ, লবণ আধা চা চামচ, চিনি ৫ টেবিল চামচ, গরম পানি ১ কাপ, তেল পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালি: পানি গরম করে সব উপকরণ পাত্রের মধ্যে দিয়ে দিন। ডো তৈরি হলে খেজুর কাঁটা অথবা টুথপিক দিয়ে অাঁচড়ে নকশা করে ডুবো তেলে ভেজে তুলুন। ব্যস হয়ে গেলো নকশী পিঠা।

৪. চন্দ্রপুলি

উপকরণ : আধা লিটার দুধ, ২০০ গ্রাম খেজুুর গুড়, ৩ কাপ নারকেল কুরানো, ৩ কাপ ময়দা, ১ কাপ চিনি।

প্রস্তুত প্রণালি: প্রথমে দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন এক কাপ করে নিন। এবার অর্ধেক নারকেল মিহি করে বেটে নিন। দুধের সঙ্গে চিনি, নারকেল মেশান। ময়দা দিয়ে কাই তৈরি করে নিন। বাকি নারকেলের সঙ্গে গুড় মিশিয়ে জ্বাল দিন। চটচটে হলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন।

ময়দার খামির দিয়ে রুটি বেলে নারকেলের পুর ভরে বাঁশের চটা বা ছুরি দিয়ে অর্ধচন্দ্রাকারে কেটে নিন। এবার তেল গরম করে একবারে ৩-৪টি পিঠা ডুবো তেলে ভেজে ফেলুন।

৫. দুধ পুলি

উপকরণ : চালের গুড়া ১ কাপ, শুকনো পাটালি ১-২ কাপ, ছোট এলাচ গুড়া ১-২ চা চামচ, নারকেল কোরানো ২-৩ কাপ, শুকনো নারকেল কোরা ১-২ কাপ, দুধ ৫০০ গ্রাম, গুঁড়া চিনি দেড় কাপ, লবণ সামান্য, মধু ২ চা-চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি: পাটালি গুড় ও নারকেল কোরা ঢিমে আঁচে নাড়াচাড়া করে নিন। পুর তৈরি হলে এ পুর থেকে ছোট নাড়ুর আকারে বানিয়ে রাখুন। পাত্রে ফুটন্ত গরম পানির চালের গুঁড়া, লবণ মিশিয়ে প্যাক দিয়ে মন্ড তৈরি করে ঠান্ডা হলে লেচি তৈরি করে রাখুন।

লেচিগুলো বাটির আকারে গড়ে ভেতরে নাড়ু রেখে পুলির আকারে গড়ে নিন। দুধ ফুটে সামান্য ঘন হলে একে একে গুড়, এলাচ গুড়া ও পুলিগুলো দিয়ে  ফোটান। পুলিগুলো ভেসে উঠলেই মধু দিয়ে অাঁচ বন্ধ করে ঠান্ডা হতে দিন।