সঙ্গীত পাল্টে দেয় শিশুর মস্তিষ্কের গড়ন

5988

যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলোতে দীর্ঘদিন ধরে একটি বিশ্বাস প্রচলিত যে, শৈশবে সঙ্গীত বা বাদ্যযন্ত্রের প্রশিক্ষণ দেয়া হলে শিশুর মনোযোগ ধরে রাখার ক্ষমতা বেড়ে যায়, আবেগ নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা বাড়ে এবং মানসিক উদ্বিগ্নতা কমে ।

প্রচলিত এই বিশ্বাসের যথার্থতা প্রমাণের জন্য এবং সঙ্গীত শিক্ষার সাথে মস্তিষ্কের গড়নের সম্পর্ক নির্ণয় করতে মনস্তত্ববিদরা ইদানীংকালে বেশ কিছু গবেষণা চালিয়েছেন।

ClassTune

যুক্তরাষ্ট্রের ভারমন্ট কলেজ অভ মেডিসিনের অধ্যাপক ডক্টর জেমস হাডজিয়াক স্বাভাবিক মস্তিষ্কের বিকাশের উপর দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা করছেন। তার গবেষণালব্ধ ফল বিশ্লেষণ করে গবেষক দলটি ছয় থেকে আঠারো বছর বয়সী ২৩২ জন শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশ পর্যবেক্ষণ করে ।

পর্যবেক্ষণে উঠে আসে শিশুদের মস্তিষ্কের অভিযোজন ক্ষমতা স্বাভাবিকভাবেই বেশি এবং বয়স বাড়ার সাথে সাথে মস্তিষ্কের বহিরাবরণ বা কর্টেক্সের ঘনত্ব পরিবর্তিত হতে থাকে।

হাডজিয়াক এবং তার গবেষক দল আগেই গবেষণায় দেখেছিলেন, মস্তিষ্কের কর্টেক্সের বিশেষ বিশেষ অংশের ঘনত্ব বাড়া বা কমার সঙ্গে উদ্বিগ্নতা, বিষন্নতা এবং মনোযোগ ধরে রাখার সময়সীমাসহ আরো কিছু আচরণগত সমস্যা সরাসরি জড়িত ।

ইদানীংকালের গবেষণায় তারা দেখতে পেয়েছেন শৈশব বা কৈশোরে যেসব শিশু সঙ্গীত শিক্ষা লাভ করে তাদের ক্ষেত্রে কর্টেক্সের ঘনত্বের এই পরিবর্তন আশাজনকভাবে ইতিবাচক হয়। 

Journal of the American Academy of Child & Adolescent Psychiatry-কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ডক্টর হাডজিয়াক জানান, শিশুর মানসিক গড়নের ওপর তার চারপাশের পরিবেশ, পরিবার, বন্ধুবান্ধব, শিক্ষক, পোষাপ্রাণী, শখসহ সমস্ত কিছুরই প্রভাব থাকে। এবং সঙ্গীতও এসব প্রভাবক উপাদানের মধ্যে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান।

যেহেতু সঙ্গীত এবং বাদ্যযন্ত্রের শিক্ষার সাথে নিয়ন্ত্রণ এবং সমন্বয় ওতোপ্রোতভাবে জড়িত, তাই মস্তিষ্কের উপর এর প্রভাবও বেশ লক্ষ্যণীয় ।

এর ফলে মস্তিষ্কের যেসব অংশ মানুষের আচরণ নিয়ন্ত্রণ করে সেসব অংশও প্রভাবিত হয়। ডক্টর হাডজিয়াক তার গবেষণায় দেখেছন, মস্তিষ্কের যে অংশ কার্যকরী সিদ্ধান্ত নেয়, স্মৃতিশক্তি ও মনোযোগ নিয়ন্ত্রণ করে, এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা গ্রহণ করে,  কর্টেক্সের সেসব অংশের ঘনত্ব সঙ্গীতবিদ্যা ও চর্চার অভ্যাস দিয়ে প্রভাবিত হয় ।

আবার কর্টেক্সের যে অংশ আবেগ ও আচরণের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ করে, সে অংশের ঘনত্বকেও প্রভাবিত করতে পারে সঙ্গীত ও বাদ্যযন্ত্রের প্রশিক্ষণ। এর মানে হচ্ছে, গবেষণার ফলাফল প্রচলিত বিশ্বাসের পক্ষেই গেছে।

শৈশবে সঙ্গীত শিক্ষার ফলাফল যে মস্তিষ্কের উন্নতির পক্ষে উপযোগী তাই প্রমানিত হলো ডক্টর হাডজিয়াক ও তার দলের গবেষণার চূড়ান্ত ফলাফলে ।