কাল শুরু হচ্ছে শিশুর অনলাইন নিরাপত্তা কর্মসূচি

84
Be-Smart,-Use-Heart-2019

আগামীকাল (সোমবার) থেকে শুরু হচ্ছে শিশুর অনলাইন নিরাপত্তা বিষয়ক কর্মসূচি ‘বি স্মার্ট, ইউজ হার্ট’। ঐদিন রাজধানীর শামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং সালাহউদ্দিন আহমেদ আদর্শ স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে শুরু হচ্ছে দেশব্যাপী ৩০০ স্কুলের এই কর্মসূচি। ইউনিসেফ, গ্রামীণফোন এবং টেলিনর গ্রুপ আয়োজিত এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে চ্যাম্পসটোয়েন্টিওয়ান ডটকম।

ইন্টারনেট শিশুদের জন্য একটি শক্তিশালী হাতিয়ার যা তথ্য, শিক্ষা, ক্ষমতায়ন এবং অংশগ্রহণের সুযোগ দিয়ে তাদের বিকাশে সহায়তা করতে পারে। তবে অনুপযুক্ত উপকরণ ও আচরণের মাধ্যমে ইন্টারনেট শিশুদের সহিংসতা, নিগ্রহ ও অপব্যবহারের শিকার হওয়ার ঝুঁকিতে ফেলতে পারে।

ClassTune

এবছর ৭টি বিভাগীয় শহর এবং ২০টি জেলার ৩০০টি স্কুলের ৫ লাখ শিশু-কিশোরকে অনলাইনে নিরাপদ থাকার বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। বাবা-মায়েদের সংবেদনশীল করে তোলাও এই প্রকল্পের অন্যতম উদ্দেশ্য, কেননা ইন্টারনেটে শিশুরা কী ধরনের বিষয়বস্তুর সম্মুখীন হয়- তা নিয়ে ভীতির কারণে অনেক বাবা-মা তাদের সন্তানদের ইন্টারনেট ব্যবহার করতে বাধা দেয়। এটা শিশুদের ইন্টারনেট থেকে উপকৃত হওয়ার সুযোগকে ব্যাহত করে। শিশুদের অনলাইন সুরক্ষায় সহায়তা দিতে এই প্রকল্পের আওতায় এবছর ২ লাখ বাবা-মা, শিক্ষক ও সংশ্লিষ্ট সকলের সচেতনতা তৈরিতে কাজ করা হবে।

এছাড়া দেশের অন্তত ১০০টি স্কুলে ‘সেফ ক্লাব’ তৈরি করা হবে, যেখানে শিশু সুরক্ষার বিষয়ে নিয়মিত কাজ করা হবে।

কর্মসূচিতে প্রশিক্ষিত প্রশিক্ষকদের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। এই লক্ষে গত ২৬ ও ২৭ আগস্ট জিপি হাউজে উক্ত প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। প্রশিক্ষণ প্রদান করেন স্বনামধন্য কথাসাহিত্যিক ও প্রশিক্ষক দিপু মাহমুদসহ গ্রামীণফোন, ইউনিসেফ এবং চ্যাম্পসটোয়েন্টিওয়ান ডটকমের কর্মকর্তাবৃন্দ।

উল্লেখ্য, কীভাবে নিরাপদে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হয় সে বিষয়ে শিশু, তাদের বাবা-মা ও লালন-পালনকারীদের সচেতন করার বিষয়টি নিশ্চিত করতে এবং ‘বি স্মার্ট, ইউজ হার্ট’ শীর্ষক প্রকল্পের মাধ্যমে ঝুঁকি কমিয়ে আনতে ২০১৮ সাল থেকে সহযোগিতার ভিত্তিতে কাজ করছে ইউনিসেফ বাংলাদেশ, গ্রামীণফোন ও টেলিনর। আর বাস্তবায়নে কাজ করছে চ্যাম্পসটোয়েন্টিওয়ান ডটকম।