এবারের টেলিনর ইয়ুথ ফোরামের সূচনা

TYF 2018 launch

‘ব্রাইট মাইন্ডস, রিডিউসিং ইনইক্যুয়ালিটিজ’ স্লোগান নিয়ে শুরু হয়েছে ষষ্ঠ টেলিনর ইয়ুথ ফোরাম (টিওয়াইএফ)। তরুণদের ক্ষমতায়নের বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করার জন্য তরুণ মেধাবীদের খুঁজে পেতে ৭ মে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে টেলিনর ইয়ুথ ফোরাম ২০১৮ এর সূচনা ঘোষণা করা হয়েছে।

টেলিনর ইয়ুথ ফোরাম (টিওয়াইএফ) একটি বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্ম, যৌথভাবে যা ডিজাইন ও পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে টেলিনর গ্রুপ এবং নোবেল পিস সেন্টার (এনপিসি)। তরুণরাই পারে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে পৃথিবীতে সত্যিকারের পরিবর্তন আনতে, প্রতিষ্ঠান দু’টির নিজেদের যৌথ এ বিশ্বাসের ওপরই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে টেলিনর ইয়ুথ ফোরাম।

ClassTune

এ বছর টিওয়াইএফ নিরাপদ ইন্টারনেট, ডিজিটাল পরিচয়, সামাজিক উন্নয়নে বিগ ডাটার ব্যবহার এবং নিরাপদ কর্মপরিবেশ সংক্রান্ত প্রকল্পের মাধ্যমে ‘ব্রাইট মাইন্ডস, রিডিউসিং ইনইক্যুয়ালিটিজ’ স্লোগানের সার্থকতা দেখতে চায়।

অনুষ্ঠানে গ্রামীণফোনের চিফ করপোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন বলেন, ‘বাংলাদেশ একটি নবীন দেশ এবং এর জনগোষ্ঠীও তরুণ। অর্থাৎ, এদেশে ধারণা সৃষ্টির পাশাপাশি ধারণা বাস্তবায়নের মানুষও আছে। আর এটাই বাংলাদেশে বড় শক্তি। টেলিনর ইয়ুথ ফোরামের শেষ পাঁচ সংস্করণে বাংলাদেশের প্রতিনিধিরা ডিজিটাল প্রযুক্তির মাধ্যমে সামাজিক সমস্যার সমধানে লক্ষ্য অর্জনে বড় ভূমিকা রেখেছ। আমাদের বিশ্বাস এ বছরও তার কোন ব্যতিক্রম হবে না।’

গ্রামীণফোনের ভারপ্রাপ্ত প্রধান মানবসম্পদ কর্মকর্তা সৈয়দ তানভির হোসেন এবং হেড অব কমিউনিকেশনস সৈয়দ তালাত কামাল এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশে টিওয়াইএফ ২০১৮ এ আবেদনে আগ্রহীরা এই লিংকের মাধ্যমে আগামী ৩১ জুলাই এর মধ্যে আবেদন করতে পারবেন।

২০ থেকে ২৮ বছর বয়সী তরুণ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী, শিক্ষক, পেশাজীবী, উদ্যোক্তা এবং উদ্ভাবকরা আগামী ৮ থেকে ১০ ডিসেম্বর নরওয়ের অসলোতে অনুষ্ঠিতব্য টিওয়াইএফ- এ আবেদনের জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবে। আবেদনকারীদের মধ্য থেকে বিভিন্ন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে চূড়ান্ত পর্বের জন্য ২ জনকে বাছাই করা হবে।

বাংলাদেশ থেকে নির্বাচিত প্রতিনিধিরা অসলো এবং ব্যাংককের অনুষ্ঠানসহ বছরজুড়েই তাদের জন্য নির্ধারিত দলের সাথে কাজ করবে। জরুরি সব সামাজিক সমস্যা সমাধানে ডিজিটাল সেবা তৈরিতে বছরজুড়েই তারা কাজ করবে। তাদের কাজ চূড়ান্ত বিচারে বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করবে।

টিওয়াইএফ- এর বাংলাদেশ পর্ব অসলোতে প্রেরণের জন্য দু’জন প্রতিনিধি নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হবে। এ বছর বাংলাদেশ, ডেনমার্ক, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, নরওয়ে, পাকিস্তান, সুইডেন এবং থাইল্যান্ডের প্রতিনিধিরা নরওয়ের রাজধানী অসলোতে আয়োজিত বিশেষ অনুষ্ঠানে অংশ নেবে।

গত বছরে টেলিনর ইয়ুথ ফোরামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের (আইবিএ) শিক্ষার্থী মিয়া মো খিয়াং ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাকিব রহমান শাওন নরওয়ের বৈশ্বিক চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশক প্রতিনিধিত্ব করার জন্য নির্বাচিত হয়।