বিশ্বকাপের ভেন্যু পরিচিতি : রিভারসাইড গ্রাউন্ড

Riverside Ground

রিভারসাইড গ্রাউন্ড ইংল্যান্ডের ডারহ্যাম কাউন্টির চেস্টার-লি-স্ট্রিটে অবস্থিত একটি ক্রিকেট মাঠ। স্পন্সরশীপজনিত কারণে আনুষ্ঠানিকভাবে এ মাঠটি এমিরাটস ডারহ্যাম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মাঠ নামে পরিচিতি পাচ্ছে। ডারহ্যাম কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের অনুশীলনী মাঠ হিসেবে এটি ব্যবহৃত হয়। এছাড়াও এখানে বেশকিছুসংখ্যক সফরকারী দলের বিপক্ষে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের মধ্যকার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার আয়োজন করা হয়।

রিভারসাইড গ্রাউন্ডের উত্তর-পূর্ব প্রান্তে লামলে প্রাসাদ অবস্থিত। আন্তর্জাতিক পর্যায়ের ক্রিকেটে দর্শক ধারণের উপযোগী করে অস্থায়ীভিত্তিতে মাঠের উত্তর-পূর্ব প্রান্তে আসন সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়। স্থায়ী ও অস্থায়ীভাবে মাঠের পূর্ণাঙ্গ দর্শক ধারণ সক্ষমতা হচ্ছে প্রায় ১৯ হাজার।

ClassTune

ইতিহাস
১৯৯১ সালে ডারহ্যাম ক্লাবের আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণের শর্ত হিসেবে টেস্ট খেলার উপযোগী করে স্টেডিয়াম নির্মাণের কথা বলা হয়। ১৯৯০ সাল থেকেই এ মাঠ নির্মাণের প্রস্তুতি নেয়া হয় যা অদ্যাবধি বিভিন্ন ধাঁপে অগ্রসর হচ্ছে। ১৯৯৩ সালে মাঠের বহিরাবরণ ও খেলার আচ্ছাদন তৈরি শুরু করা হয়। কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশীপের প্রথম তিন মৌসুমে ক্লাবটি কাউন্টির বিভিন্ন স্থানে খেলতে থাকে।

১৯৯৫ মৌসুমে এ মাঠটিতে ক্রিকেট খেলার উপযোগী করা হয়। ১৮ মে, ১৯৯৫ তারিখে ডারহ্যাম বনাম ওয়ারউইকশায়ারের মধ্যে প্রথম খেলার মাধ্যমে মাঠটি উদ্বোধন করা হয়। এছাড়া ১৯৯৬ সালে রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ ক্লাবের ডন রবসন প্যাভিলিয়ন উদ্বোধন করেন।

২০১৭ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ চলাকালে উত্তর-পূর্ব গ্যালারির ছাদ কিছুটা ভেঙে পড়লে তিনজন দর্শক আহত হয়।

এর আগেও বিশ্বকাপের ম্যাচ হয়েছে মাঠটিতে। ১৯৯৯ সালে সেখানে বিশ্বকাপের চারটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়।

এবারের বিশ্বকাপে এই ভেন্যুর ভূমিকা
এবারের বিশ্বকাপের মোট তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে এই মাঠে। এর মধ্যে শ্রীলঙ্কারই দুটি ম্যাচ রয়েছে। একটির প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা এবং অন্যটির প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আরেকটি ম্যাচে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে খেলবে স্বাগতিক ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ড। এবার প্রতি ম্যাচে ১৪ হাজার দর্শক ভেন্যুতে খেলা দেখতে পারবেন।