ঈদে সারা’র চমক

Sara-Eid-Offer

স্নোটেক্স আউটওয়্যার লিমিটেড এর লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ‘সারা’ চলতি বছরের মে মাস থেকে কার্যক্রম শুরু করেছে। ঈদ উপলক্ষে ‘সারা’ নিয়ে এসেছে কিছু ভিন্নতা এবং নতুন ডিজাইনের পোশাক। সকল বয়সের ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে ‘সারা’ তার বাহারি ডিজাইনের পসরা সাজিয়েছে রাজধানী ঢাকার মিরপুর-৬ এ অবস্থিত আউটলেটে।

আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে ঐতিহ্য এবং পাশ্চাত্য ফ্যাশন ট্রেন্ড এই দুইকেই প্রাধান্য দিচ্ছে ‘সারা’। শার্ট, এনথিক টপস, এক্সক্লুসিভ পার্টি টপস, নিট টি শার্ট, লেগিংস, ডেনিম, লন, শ্রাগস, পালাজো ফর লেডিস অ্যান্ড গার্লস, জিন্স ফর মেনজ অ্যান্ড বয়েজ, পোলো টি শার্ট, পাঞ্জাবিসহ আরও নানা পোশাকের সমাগমে সজ্জিত থাকছে ‘সারা’।

Safe Internet

সারার হেড অফ ডিজাইন কাশফীয়া নেহরীন বলেন, ট্রেন্ড অনুসরণ করার পাশাপাশি সারার প্রত্যেকটি পণ্য ব্যবহারকারীর জন্য যেন আরামদায়ক হয় সেই দিকটাতেও আমরা গুরুত্ব দেই। উন্নতমানের কাপড় এবং সাশ্রয়ী মূল্যের জন্য ‘সারা’কে অন্যান্য ব্র্যান্ড থেকে ক্রেতাদের কাছে অধিক গ্রহণযোগ্য করে তুলেছে। এছাড়াও আমরা প্রতিনিয়ত মার্কেট গবেষণা করে নতুন ট্রেন্ডকে ক্রেতাদের সামনে উপস্থাপন করা এবং গুণগত মান আরও উন্নত করার লক্ষ্যে কাজ করে চলেছি।

‘সারা’ বাংলাদেশের রপ্তানিমুখী পোশাক শিল্পের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত স্নোটেক্স আউটওয়্যার লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান। সামর্থ্যের মধ্যে গুণগত মানের পোশাক ক্রেতার হাতে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে ‘সারা’ লাইফস্টাইল এর নতুন এই আউটলেটে শিশু, নারী, পুরুষ সবার জন্য রয়েছে আকর্ষণীয় বাহারী সব পোশাক।

উল্লেখ্য, ‘স্নোটেক্স’ ২০০০ সালে বায়িং হাউজের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে। ২০০৫ সালে নিজেদের প্রথম কারখানা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে স্নোটেক্স অ্যাপারেলস। সেই সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ২০১১ সালে ‘কাট অ্যান্ড সিউ’ এবং ২০১৪ সালে ‘স্নোটেক্স আউটওয়্যার’ প্রতিষ্ঠা করা হয়। আজকের ‘স্নোটেক্স’ হয়ে উঠেছে তিনটি বড় কারখানার একটি প্রতিষ্ঠান রূপে।

‘সারা’ তাদের প্রথম লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড। স্নোটেক্স আউটওয়ার গ্রিন ফ্যাক্টরি হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছে ইউএসজিবিসির লিড গোল্ড সার্টিফিকেটে। এটি এখন ১০ হাজারের বেশি মানুষের কর্মসংস্থান করে যাচ্ছে। যেটি ২০২০ সালের মধ্যে প্রায় ১৮ হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের জায়গা হয়ে দাঁড়াবে। এছাড়াও ঢাকার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ‘সারা’ লাইফস্টাইল অচিরেই কয়েকটি শাখা খুলবে।