বদলাবে না ‘ইন্ডিয়ানা জোনস’

1440

২০১২ সালে ডিজনি হলিউডের প্রযোজক প্রতিষ্ঠান লুকাসফিল্মকে কিনে নেয়। বিক্রির পর মুভি ভক্তরা আশা করতে শুরু করে লুকাসফিল্মের জনপ্রিয় মুভি সিরিজগুলোর নতুন পর্ব নিয়ে আসবে ডিজনি।

তাদের সেই চাওয়াকে বাস্তবায়িত করে ইতোমধ্যেই ডিজনি নির্মাণ করেছে স্টার ওয়ার্স সিরিজের নতুন পর্ব ‘স্টার ওয়ার্স: দ্য ফোর্স অ্যাওয়েকেনস’। আগামী ১৮ ডিসেম্বর মুক্তি পেতে যাচ্ছে সিনেমাটি।

এবার ভক্তরা আশায় বুক বেঁধেছেন, স্টার ওয়ার্সের পর আরেকটি অন্যতম জনপ্রিয় মুভি সিরিজ ইন্ডিয়ানা জোনস নিয়েও নতুন পর্ব নির্মাণ করা হবে। গত কয়েক বছরে এই সিরিজের ৫ম পর্ব নিয়ে বেশ আলোচনা চলছে ভক্তমহলে।

অনেকেই ধারণা করছেন ইন্ডিয়ানা জোনসখ্যাত হ্যারিসন ফোর্ডের পরিবর্তে এই চরিত্রে নেয়া হবে অন্য কাউকে। ২০০৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘ইন্ডিয়ানা জোনস অ্যান্ড দ্য কিংডম অফ দ্য ক্রিস্টাল স্কাল’ চলচ্চিত্রটি দেখার পর অনেকে দাবি করেছিলেন ইন্ডিয়ানা জোনস চরিত্রের জন্য কিছুটা বুড়িয়েই গিয়েছেন ফোর্ড। আর এ চরিত্রের জন্য গার্ডিয়ান অফ দ্য গ্যালাক্সি খ্যাত ক্রিস প্র্যাটের নাম প্রস্তাব করেছিলেন অনেকেই।

তবে সব জল্পনা কল্পনাকে উড়িয়ে দিয়ে ইন্ডিয়ানা জোনসের প্রযোজক ফ্র্যাঙ্ক মার্শাল সম্প্রতি জানিয়ে দিলেন, ইন্ডিয়ানা জোনস চরিত্রের জন্য এখনই নতুন কারও কথা ভাবা হচ্ছে না।

যদিও অন্যান্য চরিত্রগুলো নিয়ে ভাবা হচ্ছে তবে ইন্ডিয়ানা থাকছেন ফোর্ডই। তিনি বলেন, ‘আমরা আসলে কোন বন্ড সিরিজ করছি না যে আমাদের ইন্ডিয়ানা জোনসকে বদলাতে হবে। এ ব্যাপারে আমরা পরে চিন্তাভাবনা করবো’।

৫ম সিনেমার কাজ ইতোমধ্যেই বেশ কিছুটা এগিয়েছে বলে ইঙ্গিত দেন মার্শাল।

তবে মার্শালের এ ধরণের বক্তব্যে সবাই একটু অবাকই হয়েছেন বৈকি। যেখানে জনপ্রিয় চরিত্রগুলোকে রিকাস্টিং করার হিড়িক পড়ে গিয়েছে হলিউডে সেখানে তার এ ধরণের অনড় অবস্থান বেশ ঝুঁকিপূর্ণ বলতে হয়  ।

উল্লেখ্য ১৯৮১, ১৯৮৪ এবং ১৯৮৯ সালে ইন্ডিয়ানা জোনসের প্রথম ৩টি সিনেমা মুক্তি পাওয়ার পর দীর্ঘ বিরতি দিয়ে ২০০৮ সালে মুক্তি পায় এর চতুর্থ পর্ব। তবে প্রথম ৩টির মত সাফল্য নিয়ে আসতে পারেনি সর্বশেষ পর্বটি। এখন দেখা যাক ৫ম পর্ব দর্শকদের মন কতটা জয় করতে পারে।