ইন্টারনেট সচেতনতামূলক দীর্ঘমেয়াদী উদ্যোগ জরুরি

568
DPS STS School Dhaka Campaign

নিরাপদে ইন্টারনেট ব্যবহার, অনাকাঙ্খিত সাইবার ক্রাইম থেকে নিজেকে রক্ষা করা, তথ্য সুরক্ষা, সর্বোপরি ইন্টারনেটের ব্যবহার বাড়াতে ‘বি স্মার্ট, ইউজ হার্ট’ এর মতো ইন্টারনেট সচেতনামূলক ক্যাম্পেইনের ধারাবাহিকতা প্রয়োজন রয়েছে। শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবকদের পাশাপাশি সকলের জন্য দীর্ঘমেয়াদী উদ্যোগ নেয়া জরুরি।

বুধবার রাজধানীর উত্তরায় ডিপিএস এসটিএস স্কুলে ‘বি স্মার্ট, ইউজ হার্ট’ শীর্ষক নিরাপদ ইন্টারনেট বিষয়ক ক্যাম্পেইনে এসব কথা জানান বক্তারা। ইন্টারনেটে কীভাবে নিরাপদ থাকা যায় সে বিষয়ে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের মধ্যে সচেতনতা তৈরিতে দেশব্যাপী অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই ক্যাম্পেইন। গ্রামীণফোন, টেলিনর ও ইউনিসেফের যৌথ আয়োজনে ক্যাম্পেইনটি বাস্তবায়ন করছে চ্যাম্পসটোয়েন্টিওয়ান ডটকম।

Safe Internet

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাইকেল ফোলি, ডিপিএস এসটিএস স্কুল ঢাকার প্রিন্সিপাল হার্ষ ওয়াল, ভাইস প্রিন্সিপাল মধু ওয়াল, ইউনিসেফ ইনকর্পোরেটেড এর চাইল্ড প্রটেকশন স্পেশালিস্ট ক্রিস্টিনা ওয়েসলান্ড, চ্যাম্পসটোয়েন্টিওয়ান ডটকমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাসেল টি আহমেদ, ইউনিসেফ বাংলাদেশের চাইল প্রটেকশন স্পেশালিস্ট শাবনাজ জাহেরিন, গ্রামীণফোনের হেড অব সাসটেইনিবিলিটি রাসনা হাসান, কর্পোরেট রেসপনসিবিলি স্পেশালিস্ট হাফিজুর রহমান খান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সেশনে প্রায় ১১০০ শিক্ষার্থীকে কীভাবে নিরাপদে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায় সে বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। ইন্টারনেটকে কীভাবে পড়ালেখা, যোগাযোগসহ দৈনন্দিন বিভিন্ন প্রয়োজনে ব্যবহার করা যায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কী করা উচিত ও কী করা উচিত নয়, কীভাবে নিজের অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখা যায়, সাইবার বুলিং থেকে রক্ষা ও সাইবার বুলিংয়ের শিকার হলে কী করণীয় এসব বিষয়ে বিষদভাবে আলোচনা করা হয়। এ বিষয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের করণীয় ও বর্জণীয় বিষয় নিয়ে আলাদা লিফলেটও বিতরণ করা হয়।

পাশাপাশি অনলাইন নিরাপত্তা সম্পর্কিত বিষয়গুলো সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকলে কিংবা সাইবার অপরাধের শিকার হলে ‘নিরাপদ ইন্টারনেট’ ক্যাম্পেইনের হেল্পলাইন নাম্বার ১০৯৮ এ কল করার বিষয়েও শিশুদেরকে অবহিত করা হয়।